kalerkantho


এবার রোষের মুখে বদ্রীনাথ কি দুলহনিয়া

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৮:৩০



এবার রোষের মুখে বদ্রীনাথ কি দুলহনিয়া

জয়পুরে পদ্মাবতী ছবির শুটিং করতে গিয়ে তীব্র বিপাকে পড়তে হয়েছিল বলিউড পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনশালিকে৷ ছবিতে ইতিহাসকে বিকৃত করা হচ্ছে৷ রানি পদ্মিনীর সঙ্গে আলাউদ্দিন খিলজির ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের কথা তুলে ধরা হচ্ছে সেখানে৷ এমন দাবি তুলে ছবির সেটে ভাঙচুর চালিয়েছিল কর্ণি সেনা৷ এমনকী প্রতিবাদী ওই হিন্দু সংগঠনের সদস্যের হাতে থাপ্পড়ও খেতে হয়েছিল বিখ্যাত এই পরিচালককে৷ গোটা ঘটনায় বিতর্কে ঝড় উঠেছিল৷ এবার ফের এমনই এক হিন্দু দলের রোষের মুখে পড়ল বলিউডের আরেকটি আপকামিং ছবি৷

সূত্রের খবর, পরিচালক শশাঙ্ক খৈতানের ছবি বদ্রীনাথ কি দুলহনিয়া ছবিটির নামকরণ নিয়ে তীব্র আপত্তি জানিয়েছে এক হিন্দু সংগঠন৷ একটি ইংরাজি সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী, ওই হিন্দু সংগঠন ইতিমধ্যেই সেন্সর বোর্ড অফ ফিল্ম সার্টিফিকেশন (সিবিএফসি)-এর কাছে একটি চিঠি জমা দিয়েছে৷ যেখানে ছবির নামে বদ্রীনাথ শব্দটি ব্যবহারের বিরোধিতা করা হয়েছে৷ সংগঠনের দাবি, বদ্রীনাথ হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষের কাছে একটি অত্যন্ত পবিত্র তীর্থস্থান৷ ভগবান শিব ও লক্ষ্মীর দর্শনে হাজার হাজার মাইল দূর থেকে প্রতিবছর এই স্থানে ভিড় জমান ভক্তরা৷ অথচ ছবিতে বদ্রীনাথের চরিত্রে একজন যুবকের প্রেম-ভালবাসার কাহিনি তুলে ধরা হয়েছে৷ যা কোনওভাবেই মেনে নিতে পারছে না হিন্দু সংগঠনটি৷ আর তাই প্রতিবাদে শামিল হয়েছেন সংগঠনের সদস্যরা৷

ছবিতে নাম ভূমিকায় দেখা যাবে বরুণ ধাওয়ানকে৷ তাঁর বিপরীতে অভিনয় করেছেন আলিয়া ভাট৷ শোনা যাচ্ছে, তারা বদ্রীনাথ নাম পাল্টে শুধু বদ্রী রাখার পরামর্শও দিয়েছে সিবিএফসি-কে৷ চলতি বছর ১০ মার্চ ছবিটি মুক্তি পাওয়ার কথা৷ পুরোদমে চলছে ছবির প্রচারও৷ এবার হিন্দু সংগঠনটির এমন দাবিতে নাম পরিবর্তন হলে, বিপাকে পড়তে পারে ছবির ইউনিট৷ সবমিলিয়ে চলচিত্র ঘিরে উগ্রহিন্দুত্ববাদে বেশ বিরক্ত বলিউড৷

 

। ।

মন্তব্য