kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


হলিউড বলিউড জয়ী অনন্য একজন ইরফান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২০:৪৩



হলিউড বলিউড জয়ী অনন্য একজন ইরফান

তিনি ইরফান খান। কোন গ্ল্যামারাস অভিনেতা না হলেও বলিউডের অন্যতম সেরা একজন অভিনেতা।

২১ বছরের ক্যারিয়ার। এর মধ্যে বলিউড ছেড়ে পাড়ি জমিয়েছেন হলিউডে। ড্যানি বয়েলের ‘স্লামডগ মিলিয়নিয়ার’-এ অভিনয় করে যে সুনাম অর্জন করেছিলেন তা দিনে দিনে আরও অন্য উচ্চতায় নিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

তাই এই মেধাবী অভিনেতা যখন হলিউডের সিনেমা করার আমন্ত্রণ পেলেন তখন কেউ অবাক হয়নি। যেন ইরফান খানের জন্য এটা আশ্চর্যজনক কিছু নয়। তিনি যে পরিমাণ মেধাবী তাতে বিশ্বের যে কোন চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রিই তাকে লুফে নেবে। কয়েক মাস আগে ইরফান বাংলাদেশেও এসেছিলেন মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর চলচ্চিত্র ‘ডুব’-এ অভিনয় করার জন্য। এত বড় একজন অভিনেতার বিনয়ী আচরণে তখন মুগ্ধ হয়েছিলেন সবাই।

বলিউডে এখন ইরফান খানকে বলা হয় ‘ট্যালেন্ট’ এর প্রতিশব্দ। শুধু প্রিয়াঙ্কা চোপড়া আর দীপিকা পাডুকোন নন, হলিউডের সিনেমায় ইরফান এখন ভারতের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর। তার সর্বশেষ বলিউড মুভি ‘মাদারি’ সুপারহিট করে। ছবিটিতে তার স্বভাবসুলভ অনন্য অভিনয় মাতিয়ে দেয় সবাইকে।

২০১১ সালে পদ্মশ্রী, ২০১২ সালে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, তিনবার তিন ক্যাটাগরিতে ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড আর অসংখ্য পুরস্কার জয়ী এই অভিনেতার ব্যক্তিগত জীবনযাপন খুবই সাধারন। তার বাড়ির সবচেয়ে আকর্ষণীয় বিষয়টি হলো বইয়ের স্তুপ। শেলফ, আলমারি তো বটেই, ড্রয়িং রুমের টেবিল পর্যন্ত বইয়ের চাপে নুইয়ে থাকে। সেখানে চলচ্চিত্র, ভ্রমণ, সঙ্গীত, দর্শন, গবেষণা, সাহিত্য সকল শ্রেণীর বইয়ের সমাহার।

এত বই পড়ার সময় কোথায় পান? ইরফানের জবাব-“সময় পাওয়া যায়না। কিন্তু সময় বের করে নিতে হয়। জ্ঞানের দরজা খুলে দিতে বইয়ের বিকল্প নেই। তাই বই পড়া আমার দৈনন্দিন রুটিনের অংশ। ”

কোন গ্ল্যামার না হয়েও তিনি গ্ল্যামার তার অভিনয়গুণে। সেই সঙ্গে সংযত এবং মিষ্ট আচরণের জন্য ইরফান বিখ্যাত। এত শীর্ষে উঠেও তিনি নিজেকে নিয়ে কোনো অহংকার করেন না। বলেন, আরও অনেক কিছুই  নাকি বাকী আছে! দর্শকরাও চায় ইরফান খান তার অভিনয় নিয়ে বারবার ফিরে আসুন রুপালী পর্দায়।


মন্তব্য