kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সাগরপারে হোঁচট খেলেন সুন্দরী, তারপরের কাহিনী ভয়ানক!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৩:১১



সাগরপারে হোঁচট খেলেন সুন্দরী, তারপরের কাহিনী ভয়ানক!

অস্ট্রেলিয়ার ব্রুমস কেবল বিচে হেঁটে বেড়াচ্ছিলেন বিন্দি লি পোর্ট। সঙ্গে ছিল তাঁর মেয়ে।

ঘটনাটি ঘটে গত রবিবারে। সন্ধ্যা হবে হবে করছে। সানসেটের দিকেই ছিল নজর। হাঁটতে হাঁটতে হোঁচট খেলেন হটাৎ। সমুদ্রসৈকতে এ কীসের ছাপ! লক্ষ করলেই বোঝা যায় বেশ ভারী কোনো পায়ের ছাপ। বিন্দির পায়ের চেয়ে অনেকটা বড়। এর পর একটু খেয়াল করে দেখলেন এমন অনেকগুলি ছাপ রয়েছে সমুদ্রের ধারে ধারে। কীসের ছাপ? মনে প্রশ্নটা এলেও ভাবতেই পারেননি এত বড় কিছু একটা আবিষ্কার করে ফেলেছেন তিনি।

ব্রুমস কেবল বিচে এত বড় বড় পায়ের ছাপ কার? কোন প্রাণীর? প্রশ্নটা মাথায় এসেছিল কিন্তু বুঝতে পারছিলেন না কিছুই। এটুকু শুধু বুঝেছিলেন তাঁর চেনা জানা জগতের কোনও প্রাণী নয়। এক বড় পা কোনো প্রাণীর?

পরে রহস্যের উত্তর দিয়েছেন কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের জীবাশ্মবিদ ডক্টর সালিসবারি। কেবল বিচে এমন পায়ের ছাপ তাঁর গবেষণার কাজে সহযোগিতা করবে বলে মনে করছেন সালিসবারি। পশ্চিম অস্ট্রেলিয়ার কিম্বারল এলাকায় দীর্ঘদিন ধরেই ডায়নোসরের পায়ের ছাপ নিয়ে গবেষণা করছেন। সালিসবারির দাবি, বিন্দির দেখা পায়ের ছাপগুলি ১৩০ কোটি বছর আগেকার। আর সেই সময়ে ডায়নোসরেরই অস্তিত্ব ছিল। যে পায়ের ছাপ মিলেছে সেগুলি ১-১.৬ ফুট পর্যন্ত লম্বা। মনে করা হচ্ছে, সমুদ্রের নিচে বালির তলায় চাপা পড়ে ছিল ফুট প্রিন্টিগুলি। সমুদ্রের ঢেউয়ে বালির স্তর সরে গিয়ে প্রকাশ পেয়েছে। এইসব দাবি যদি সত্যি হয় তবে বিন্দি লি পোর্ট সত্যিই সত্যিই বেড়াতে গিয়ে হোঁচট খেয়ে এমন কিছু আবিষ্কার করে ফেলেছেন যা পুষ্ট করবে ডায়নোসর নিয়ে যাবতীয় গবেষণাকে।
সূত্র : এবেলা

 


মন্তব্য