kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কপিল শর্মা, ইরফান খানের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণ হলে তিন বছর জেল!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৩:১০



কপিল শর্মা, ইরফান খানের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণ হলে তিন বছর জেল!

সম্প্রতি কমেডিয়ান কপিল শর্মা টুইটে অভিযোগ করেন, তার থেকে বম্বে মিউনিসিপাল করপোরেশন (বিএমসি) এর কয়েকজন কর্মকর্তা গোরেগাঁওয়ে নবম তলার একটি ফ্ল্যাটে অফিস খোলার অনুমতি দেওয়ার জন্যে ৫ লাখ টাকা ঘুষ চেয়েছেন। শুধু তাই নয়, কপিল সেই টুইট করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ট্যাগ করে দেন এবং জানতে চান এটাই কি তাঁর 'অচ্ছে দিন'? এরপরই সেই টুইট রিটুইট হতে থাকে।

এ ঘটনায় তদন্তের আশ্বাস দেওয়া হয় মহারাষ্ট্র সরকারের পক্ষ থেকে।

প্রসঙ্গত, গোরেগাঁওয়ে ডিএলএইচ এনক্লেভে নবম তলায় একটি অফিস খোলার সিদ্ধান্ত নেন কপিল শর্মা। সেই ফ্ল্যাট নিয়ে বিতর্কের শুরু। তবে পরে জানা যায়, কপিলই বেআইনিভাবে ওই প্লটে নির্মাণ কাজ করেছেন। তারপরই তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়। কপিল ছাড়াও এফআইআর দায়ের করা হয়েছে ওই বিল্ডিংয়ে ফ্ল্যাট আছে অভিনেতা ইরফান খান এবং আরও তিন ব্যক্তির বিরুদ্ধে।

সূত্রের খবর, অভিযোগ প্রমাণ হলে তিন বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে কপিল শর্মা এবং ইরফান খানের।

থানায় এফআইআর দায়ের করেছেন পি-সাউথ ওয়ার্ডের জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার অভয় জগটপ। তিনি ওই ফ্ল্যাটগুলোর মালিক এবং নির্মাণকারী সংস্থার বিরুদ্ধে সেকশন ৫৩(৭) ধারায় এফআইআর দায়ের করেছেন। কারণ, তাঁরা বেআইনি নির্মাণ করেছেন। এই ধারায় অভিযোগ হলে এবং তার সত্যতা প্রমাণ হলে একমাস থেকে তিন বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে অভিযুক্তের। দু হাজার থেকে পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা হতে পারে।

বম্বে মিউনিসিপাল করপোরেশনের কর্মকর্তারা গোরেগাঁওয়ের ওই এনক্লেভের ১৫টি ফ্ল্যাটে বিভিন্ন রকমের বেআইনি নির্মাণের খবর পেয়েছেন। এর মধ্যে নবম তলার ফ্ল্যাটগুলোর কথা বলা আছে। ওই তলায়ই একটি ফ্ল্যাট রয়েছে কমেডিয়ানের। ওই বাড়িরই পঞ্চম তলায় ফ্ল্যাট রয়েছে ইরফান খানের।


মন্তব্য