kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


করণের ছবির অপপ্রচারে কেআরকে-কে ঘুষ অজয়ের!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:১৪



করণের ছবির অপপ্রচারে কেআরকে-কে ঘুষ অজয়ের!

ছবি মুক্তিকে কেন্দ্র করে বলিপাড়ার তরজা যে কোন পর্যায়ে যেতে পারে তা দেখা গেল কামাল আর খানের সৌজন্যে৷ তাঁকে মাঝখানে রেখে যুযুধান দু’জন হলেন অজয় দেবগান ও করণ জোহর৷ একজনের ছবি ‘শিবায়’, অন্যজনের ছবি ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ মুক্তি পেতে চলেছে একই দিনে৷ আগামী ২৮ অক্টোবর সেই মুক্তিকে ঘিরেই প্রযোজকদের জলঘোলার বাস্তব চিত্রটি উঠে এল কামাল আর খানের সূত্রেই।

স্বঘোষিত এই চিত্র সমালোচকের মন্তব্যে এমনিতেই নানা বিতর্ক দেখা দেয়৷ কিন্তু যতই সমালোচিত হোন না কেন, নেটদুনিয়ায় তিনি যে তুমুল জনপ্রিয় তা নিয়ে  কোনো সন্দেহ নেই৷ এই জনপ্রিয়তাকেই কাজে লাগিয়ে নিজেদের ছবির প্রমোশন করতে চান প্রযোজকরা৷ শুধু নিজেদের ছবির প্রমোশনই নয়, অন্যের ছবির নেতিবাচক প্রচারেও কাজে লাগানো হয় তাঁকে৷ দুর্মুখ বলে খ্যাত এই কামাল আর খানকেই নাকি শিবায় ছবির নেগেটিভ প্রচারে কাজে লাগিয়েছিলেন করণ জোহর৷ এমনটাই অভিযোগ আনেন অজয় দেবগান৷ একটি ভিডিও ফাঁস করে তিনি সকলের সামনে ছবিটি তুলে ধরেন৷ ভিডিওতে কামালের বক্তব্য অনুযায়ী, ‘শিবায়’র নেগেটিভ প্রচারের বরাত তাঁকে দিয়েছিলেন ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ ছবির প্রযোজক করণ জোহরই।

কিন্তু এ কাহিনীর এখানেই শেষ নয়৷ অভিযোগের উত্তরে একশ’ আশি ডিগ্রি ঘুরে কামালের জবাব, করণ তাঁকে কোনো টাকা দেননি৷ বরং অজয়ই তাঁকে শিবায় ছবির প্রমোশন করার জন্য টাকা দিতে চেয়েছিলেন৷ এ অভিযোগের উত্তরে আবার অজয় এক বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছেন, পুরো ঘটনা তদন্ত করে দেখা হোক৷ নিজের ফিল্মি কেরিয়ার ও পারিবারিক ঐতিহ্যের উল্লেখ করে তিনি জানিয়েছেন, এরকম কোনও কাজ তিনি করতে পারেন না।

কে কাকে ঘুষ দিয়েছে কার ছবির নেতিবাচক প্রচারে, তা আপাতত স্পষ্ট নয়৷ তবে কামালকে শিখণ্ডী করে বলিপাড়ার দুই বড় প্রযোজক সংস্থার তরজা যে তুঙ্গে তা বলাই বাহুল্য।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন


মন্তব্য