kalerkantho

সোমবার। ২৩ জানুয়ারি ২০১৭ । ১০ মাঘ ১৪২৩। ২৪ রবিউস সানি ১৪৩৮।


এক ফোঁটা পানির জন্য আমিরের বাড়িতে এলাে বলিউড

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩১ মার্চ, ২০১৬ ২২:৩৯



এক ফোঁটা পানির জন্য আমিরের বাড়িতে এলাে বলিউড

পারফেকশনিস্ট হিসেবে বলিউডে যেমন তাঁর সুনাম রয়েছে, তেমনই নামডাক রয়েছে সেরা বিজনেস স্ট্র্যাটেজি বের করার জন্যও!
তবে, স্ট্র্যাটেজি-সংক্রান্ত সেই সব পুরনো রেকর্ড সম্প্রতি নিজেই ভেঙে গুঁড়িয়ে দিলেন আমির খান। তৈরি করলেন এক নতুন নজির।


কিন্তু, কোনও ছবির জন্য নয়। এক ফোঁটা পানির জন্য।

কঙ্গনা রানাউত
মুম্বাই যে এই সময়ে তীব্র খরায় ধুঁকছে, সে আর কোনও নতুন খবর নয়। খরা, ফসল উৎপন্ন না হওয়া, তার জেরে ঋণশোধ করতে না পারা- সব মিলিয়ে কৃষকদের মৃত্যুমিছিল চলছেই। তারই মাঝে মহারাষ্ট্রের সাহায্যের জন্য আমির খান নিয়ে এলেন জল সংরক্ষণের জন্য নিজস্ব উদ্যোগ- পানি ফাউন্ডেশন। মাস খানেক আগেই।

কিরণ আর সাইফ
এবার, সেই পানি ফাউন্ডেশনের তরফে পানি সংরক্ষণ নিয়ে মহারাষ্ট্রবাসীকে সচেতন করতে এক অভিনব উদ্যোগ দেখা গেল আমির খানের দিক থেকে। জনসচেতনতা বাড়াতে বলিউড এবং মরাঠি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির তারাদের কাছে সাহায্য চেয়ে আবেদন জানালেন তিনি। একটি বৈঠক ডাকলেন তাঁর বাড়িতে।

রীতেশ দেশমুখ
উদ্দেশ্য তো সহজ- জনপ্রিয় তারকারা যদি ভক্তদের জল সংরক্ষণের ডাক দেন, তবে কিছুটা হলেও সচেতনতা বাড়বে।

শ্রেয়স তলপড়ে
এবং, আমিরের আবেদনে সাড়াও দিলেন তারকারা। সম্প্রতি তাঁর বাড়িতে দেখা গেল এক চোখধাঁধানো তারকা সমাবেশ। সইফ আলি খান, কঙ্গনা রানাউত, রীতেশ দেশমুখ, শ্রেয়স তলপড়ে, অতুল কুলকার্নি, রাজকুমার হিরানি, আশুতোষ গোয়াড়েকর, রীমা লাগু- অতিথি সমাগমের তালিকাটি ছিল নিঃসন্দেহে অভিনব।

অতুল কুলকার্নি
সবাইকে চমকে দিয়ে সেই বৈঠক পরিচালনায় উল্লেখযোগ্য অংশ নিয়েছেন আমিরের প্রাক্তন স্ত্রী রীনা এবং বর্তমান স্ত্রী কিরণ। এবং, তখনই জানা গেল, পানি ফাউন্ডেশন-এর অংশীদার হিসেবে নাম রয়েছে রীনারও!

রীমা লাগু
আর ছিলেন পানি সংরক্ষণের কাজে অভ্যস্ত এমন এক পেশাদার বিশেষজ্ঞ দল।
দেখা গেল, বৈঠকে সবাই বেশ মনোযোগ নিয়েই অংশ নিয়েছেন। অতুল কুলকার্নি এর আগে যুক্ত ছিলেন এমন প্রোজেক্টে, ফলে সবার সঙ্গে তিনি ভাগ করে নিলেন তাঁর পুরনো অভিজ্ঞতার কথা।

আমিরের প্রাক্তন স্ত্রী রীনা
রীতেশ দেশমুখকে দেখা গেল সমস্যা কী ভাবে নিয়ে যাওয়া যায় সমাধানের দিকে- তা নিয়ে বিশেষজ্ঞদের খুঁটিয়ে প্রশ্ন করতে! রীমা লাগুর মতো বর্ষীয়ান অভিনেত্রীও মতামত দিলেন জল সংরক্ষণের অসুবিধের দিকটা নিয়ে।

রাজকুমার হিরানি
না-ই বা রইলেন তিনি মুখপাত্র, কিন্তু অতুল্য এই ভারতের উন্নতি নিয়ে আমির খানের চিন্তাভাবনা যে থামছে না- তা প্রমাণ করে দিল এই বৈঠক।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন


মন্তব্য