kalerkantho


মঞ্চে ভক্তের পোশাক টেনে খুলে ফেললেন ম্যাডোনা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ মার্চ, ২০১৬ ১৩:৩৬



মঞ্চে ভক্তের পোশাক টেনে খুলে ফেললেন ম্যাডোনা!

যুগ যুগ ধরে তারকাদের জীবনে দুটো জিনিস থেকেই যায়। এক, নানা বিতর্কিত কর্মকাণ্ড।

দুই, তার হিট কোনো সিনেমা বা গান। কিন্তু তারকাদের জীবনে এসব বিষয়েরও একটা সময় থাকে। কিন্তু পপ স্টার ম্যাডোনার বিষয়টি পুরোই ভিন্ন। ৫৭ বছর বয়সেও তিনি নিয়মিত খবরের শিরোনাম হচ্ছেন।

এবারের ঘটনা অস্ট্রেলিয়ায়। ছোট একটি ট্যুর, কিন্তু ঘটনায় ভরপুর। এমনিতেই মঞ্চে উঠলেন ৪ ঘণ্টা দেরিতে। ক্লাউনের পোশাকে একটি ছোট ট্রাই সাইকেলে চেপে মঞ্চে আসলেন তিনি। এক টিনএজ ভক্ত দৌড়ে গেলেন মহাতারকার কাছে।

কিন্তু ঘটনা ঘটিয়ে দিলেন তখনই। ম্যাডোনা এক টানে তার ভক্তের গায়ে থাকা পোশাকটি খুলে ফেললেন। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ আসতে পারে।

এর আগেও মঞ্চে উঠে এ ধরনের বিদঘুটে আচরণ করেছেন ম্যাডোনা। তারই ধারাবাহিকতায় সর্বসম্প্রতি ঘটনাটি আবারো বিতর্ক সৃষ্টি করলো।

ব্রিসবেনে বৃহস্পতিবারের অনুষ্ঠান। ভক্তের গায়ের পোশাক খুলে ফেলার ঘটনা কয়েক সেকেন্ডের মাত্র। কিন্তু তৎক্ষণাৎ সোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে গেল। ব্রিসবেন এন্টারটেইনমেন্ট সেন্টারের দ্বিতীয় বিকালের অনুষ্ঠানে ম্যাডোনার কাছে ছুটে যান ১৭ বছর বয়সী জোসেপাইন জর্গিউ।

ভক্ত সম্পর্কে ম্যাডোনার বক্তব্য হলো, ও এমন একটা মেয়ে যার নিতম্বে এক চড় লাগানো যায়। ম্যাডোনা মেয়েটির ফিতাবিহীন টপস এক টানে খুলে ফেলেন। এতে মেয়েটির স্তনের কিছু অংশ উন্মুক্ত হয়ে পড়ে। এ সময় দর্শকদের মাঝ থেকে উল্লাস ধ্বনি আর চিৎকার ভেসে আসে।

এ কাজ করে তিনি বলেন, যৌন নিপীড়নের জন্যে আমি দুঃখিত। আপনারাও এ কাজ আমার সঙ্গে করতে পারেন, গুড লাক। এ কথা বলে তার পরনের পোশাকও তিনি ইঙ্গিতে দেখিয়ে দেন।

এরই মধ্যে অস্ট্রেলিয়ার কয়েকজন আইনজীবী একে যৌন নির্যাতনের কোন ধারায় ফেলা যায় তা নিয়ে আলোচনা শুরু করেন। কিন্তু জোসেপাইন নিশ্চিত করেছেন, তিনি পুলিশের কাছে যাবেন না। কারণ তিনি প্রিয় শিল্পীর কাছে যেতে পেরে মুগ্ধ। বলেন, জীবনের সেরা মুহূর্ত নিয়ে কেন অভিযোগ করতে যাবো?

জোসেপাইন দারুণ খুশি। জানান, স্টেজে ম্যাডোনার সঙ্গে যতটুকু সময়ই ছিলাম, তিনি আমাকে ভিক্টোরিয়াস সিক্রেট মডেল বলে সম্বোধন করছিলেন। মানুষ বলতে চায়, আমার স্তন বা দেহের অংশ বের করে ফেলাতে আমি নিজেই নির্যাতিত হয়েছি। কিন্তু আমি তা মোটেও মনে করি না।

২৩ বছর পর অস্ট্রেলিয়ায় দ্বিতীয়বারের মতো মঞ্চে উঠলেন ম্যাডোনা। প্রায় ৪ ঘণ্টা বিলম্বে আসেন। 'টিয়ারস অব আ ক্লাউন' থিমের পরীক্ষামূলক উপস্থিতি দেখা যায় তার। সেখানে ১৫ বছর বয়সী ছেলে রোকোর কথাও বলে কাঁদেন তিনি।
সূত্র : দ্য গার্ডিয়ান

 


মন্তব্য