kalerkantho


গোপনে বাগদানও সেরে ফেলেছিলেন হৃতিক-কঙ্গনা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ মার্চ, ২০১৬ ১৪:৪৩



গোপনে বাগদানও সেরে ফেলেছিলেন হৃতিক-কঙ্গনা!

কোনো একসময়ের ভালোবাসার সম্পর্ক এখন বড়ই তিতা। দায়িত্ব নিয়ে দুই বলি-তারাই এখন দুজন দুজনের দিকে কাদা ছুড়তে ব্যস্ত।

তিক্ততা এখন সোশ্যাল মিডিয়া, পেজ থ্রি-র দেওয়াল টপকে আদালত অবধি পৌঁছেছে। সেখানেও চলছে হুমকি, পাল্টা হুমকির ঘটনা। এর সঙ্গেই কিন্তু, যত দিন যাচ্ছে কঙ্গনা আর হৃতিকের সেই গোপন প্রেমের প্যান্ডোরার বাক্স থেকে রোজ রোজ বেরিয়ে আসছে নিত্য নতুন বেড়াল।

‌সুজানের সঙ্গে দাম্পত্যের তথাকথিত সুখী দিনগুলো কাটানোর সময়ই নাকি কঙ্গনা রানাউতের সঙ্গে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন হৃতিক। বহুদিন চাপা থাকার পরে মাত্র কয়েক মাস আগেই এই প্রেমের খবর ফাঁস হয়। ব্যস্, তার পর থেকেই শুরু হয় ভীষণ হইচই। হৃতিক প্রথম এই সম্পর্কের কথা অস্বীকার করলেও আপাতত পাকে পড়ে ঢোক গিলতে বাধ্য হয়েছেন। সেই কাহিনীতেই আবার নয়া টুইস্ট। 'মুম্বাই মিরর'-এর দাবি, শুধু প্রেম নয়, ২০১৪ সালে নাকি চুপিচুপি এনগেজমেন্টটাও সেরে ফেলেছিলেন হৃতিক-কঙ্গনা।

কঙ্গনার এক ঘনিষ্ঠ বন্ধু জানিয়েছেন, ২০১৪ সালে সুজানের সঙ্গে বিচ্ছেদের কথা ঘোষণা করার আগেই কুইনের অভিনেত্রীকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন হৃতিক। হৃতিক জানিয়েছিলেন সুজানের সঙ্গে ডিভোর্সটা হয়ে গেলেই কঙ্গনার সঙ্গে চটপট বিয়েটা সেরে ফেলতে চান তিনি। কঙ্গনা তখন বেশ খুশি। হৃতিক নাকি ফিল্মি ঢংয়েই প্রপোজ করেছিলেন কঙ্গনাকে। যেখানে সেখানে নয়, এক্কেবারে প্যারিসে।

তবে সেই সুখের সময় বেশিদিন টেকেনি। কৃষ থ্রি-র হাত ধরে যে মাখোমাখো প্রেমের সূচনা, বছর গড়াতে না গড়াতেই তাতে ফাটল ধরে। দুজনেরই এক ঘনিষ্ঠ সূত্রে জানা গিয়েছে, ২০১৫র ফেব্রুয়ারির শুরুতে ব্যাংব্যাং-এর শুটিং শুরু হওয়ার পর থেকেই সুর বদলাতে শুরু করেন হৃতিক। হঠাৎ করেই কঙ্গনার সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন। নিউ ইয়র্কে সেই সময়ে ছুটি কাটাচ্ছিলেন কঙ্গনা। হাই প্রোফাইল প্রেমিকের আচরণের আচমকা বদল দেখে মাঝপথেই সেই ছুটি ছেড়ে দেশে ফিরে আসেন তিনি।

১৪ ফেব্রুয়ারি হৃতিককে ডেকে তাঁকে সত্যিটা জানাতে বলেন কঙ্গনা। উল্টে হৃতিক জিজ্ঞাসা করেন, তাঁদের এনগেজমেন্টের কথা কঙ্গনা কাউকে বলেছেন কি না। কঙ্গনা জানান, তিনি সব কথাই পরিবারকে জানিয়েছেন। হৃতিক তখন বলেন, কঙ্গনা নাকি তাঁর কথার ভুল মানে করেছেন! তাঁকে নাকি আদতে বিয়ের কোনো পরিকল্পনাই নেই হৃতিকের।

হৃতিকের এই 'বিশ্বাসঘাতকতা' মেনে নিতে পারেননি কঙ্গনা। জমা থাকা ক্ষোভের বিস্ফোরণ হয় গত বছর। আর তার জেরেই আপাতত তারা আইনি লড়াইয়ে।

 


মন্তব্য