kalerkantho


ছবিটা শফিক তুহিনের এবং তিনি বাংলাদেশের সমর্থনেই চিৎকার করছিলেন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ মার্চ, ২০১৬ ১০:১০



ছবিটা শফিক তুহিনের এবং তিনি বাংলাদেশের সমর্থনেই চিৎকার করছিলেন

একদিকে বাংলাদেশ আর আরেকদিকে পাকিস্তান। দুই দলের সমর্থকদের মাঝে তুমুল উত্তেজনা। ঘটনা কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সের। কলকাতার স্থানীয় পত্রিকা আনন্দবাজারে বাংলাদেশের গীতিকার ও কণ্ঠশিল্পী শফিক তুহিনের একটি ছবি প্রকাশ করা হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে তুহিন পাকিস্তানি সমর্থকদের সাথে উল্লাসে মেতেছেন।

আসলে হয়েছেটা কি?

একদিকে বাংলাদেশ আর আরেকদিকে পাকিস্তান। দুই দলের সমর্থকদের মাঝে তুমুল উত্তেজনা চলছে। সেখানে যোগ দেন শফিক তুহিন। কলকাতার আনন্দবাজার পত্রিকা যে ছবিটা তুলেছে সেটা একেবারে কোণাকুণি অবস্থান থেকে। আর ছবি থেকে বাংলাদেশি সমর্থকদের অংশটা কেটে বাদ দেওয়া হয়েছে। বাদ দেওয়া হয়েছে তা কি হয়েছে? থেকে গেছেন শফিক তুহিন। কিংবা রাখা হয়েছে শফিক তুহিনকে। আর ছবিটা পত্রিকাতে এমনভাবে ছাপা হয়েছে দেখলে মনে হবে তুহিন পাকিস্তানের সমর্থনে উল্লাস করছেন। কি বিচিত্র কারসাজি! ছবিটা তোলা হয়েছে ১৩৫ ডিগ্রি অ্যাঙ্গেল থেকে। ফলে ছবিটিকে খুব সহজে ক্রপ (কেটে) করে প্রকাশ করা যেতে পারে। এখন প্রশ্নটা হচ্ছে আনন্দবাজার এটা ইচ্ছে করে করেছে কি না! শফিক তুহিনের নিকট বন্ধু জানান, ''পুরো ছবিটা দেখলে বোঝা যায় ছবিটা শফিক তুহিনের এবং তিনি বাংলাদেশের সমর্থনেই চিৎকার করছিলেন। কেন না মিছিলটা ছিল টাইগারদের আর সেখানে পতাকা নিয়ে একজন পাকিস্তানি ধাক্কাধাক্কিতে চলে আসেন। টাইগারদের সাথে সেই পাকিস্তানিকে প্রতীকী অর্থে খেয়ে ফেলার জন্য সবার মতোই হা করেন তুহিন। ''

আর আমাদের সোশ্যাল মিডিয়া

গতকাল থেকেই আনন্দবাজারের এই ছবি নিয়ে তোলপাড় চলছে বাংলাদেশের সোশ্যাল মিডিয়ায়। শফিক তুহিনকে গালিগালাজ করা হচ্ছিল। সোশ্যাল মিডিয়ায় খুব দ্রুত যেকোনো গুজব ছড়ায়। এখানে কেউ যাচাই করতেও চায় না আসলে ঘটনাটা কি? সংগীতশিল্পী মাহমুদ জুয়েল আক্ষেপ করে বলেন এসব। তিনি বলেন, এই ঘটনা আমাকে ব্যথিত করেছে। তুহিন আমার বন্ধু। আমরা ইডেনে একসাথে খেলা দেখেছি পুরোটা সময়।  

 


মন্তব্য