kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


প্রিয়াঙ্কায় অনুপ্রাণিত গোয়ার নারী পুলিশরা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ মার্চ, ২০১৬ ২২:৫৩



প্রিয়াঙ্কায় অনুপ্রাণিত গোয়ার নারী পুলিশরা!

অ্যালেক্স প্যারিশকে নিয়ে সারা বিশ্ব যত-ই হইচই করুক না কেন, গোয়ার নারী পুলিশরা কিন্তু মজে আছেন এসপি আভা মাথুরেই। না কি প্রিয়াঙ্কা চোপড়ায়?
কার্যত, দুই চরিত্রকেই তো জীবনদান করেছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়াই।

কিন্তু, 'কোয়ান্টিকো নয়', দেশি গার্লের দেশি এসপি অবতারকে দেখেই অনুপ্রাণিত হচ্ছেন গোয়ার নারী পুলিশকর্মীরা। তাঁদের জন্য বন্দোবস্ত করা 'জয় গঙ্গাজল'-এর বিশেষ এক স্ক্রিনিং দেখে সেরকমটাই জানাচ্ছেন তাঁরা।
'দেখুন, নারীরা কিন্তু ভিতর থেকেই আপনা-আপনি ক্ষমতা ধরেন! সাজ তাঁদের সে স্বীকৃতি দিক বা না-দিক, দিনের শেষে সংসার কিন্তু চালান নারীরাই', এসপি আভা মাথুরের দেশ শাসন নিয়ে অকপটে একথা জানালেন গোয়ার এসপি প্রিয়াঙ্কা কাশ্যপ। এতদিন ধরে অ্যান্টি টেররিস্ট স্কোয়াডে কাজ করা আর সংসার সামলানোর অভিজ্ঞতা থেকে এ সিদ্ধান্তে পৌঁছিয়েছেন এসপি কাশ্যপ।
'ফলে, নারীকে ক্ষমতার কেন্দ্রে রেখে ছবি তৈরি হলে সমাজ বদলের একটা আশা থাকে', বলছেন আশাবাদী প্রিয়াঙ্কা কাশ্যপ।
অন্যদিকে, সাব-ইন্সপেক্টর রিমা নায়েকের বক্তব্য আরও চাঁছাছোলা। 'আভা মাথুরের মতো আমাদেরও সত্যের প্রতি দায়বদ্ধ থাকতেই হবে। খুব বেশি হলে আমাদের এক থানা থেকে অন্য থানায় বদলি করে দেওয়া হতে পারে। তা বলে নিজের কর্তব্য ভুললে চলবে না', বলছেন রিমা।
এর আগে দেশ বদলে এরকম ঝড় তুলেছিল সঞ্জয় দত্তর 'লগে রহো মুন্নাভাই'। ছবিটা দেখে মুম্বইয়ের এক মফস্বলের জীবনধারা বদলে গিয়েছিল রাতারাতি। সেখানে শুরু হয়েছিল গান্ধীগিরির চর্চা।
এবার কি দেশের অপরাধ দমনে সেই ভূমিকা পালন করতে পারেন সেলুলয়েডের আভা মাথুর?
দেখা যাক!

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন


মন্তব্য