নেটেও সেন্সরের থাবা, শঙ্কিত সিনে জগৎ-332194 | বিনোদন | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

শুক্রবার । ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৫ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৭ জিলহজ ১৪৩৭


নেটেও সেন্সরের থাবা, শঙ্কিত সিনে জগৎ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ মার্চ, ২০১৬ ২২:২৩



নেটেও সেন্সরের থাবা, শঙ্কিত সিনে জগৎ

শিল্পীর স্বাধীনতায় এবার জোরালো আঘাত! চিত্র পরিচালক ও প্রযোজকরা এতদিন প্রোমো বা টিজারে ফিল্মের আনকাট ভার্সানের মাধ্যমে নেটদুনিয়ায় প্রচার চালাতে পারলেও, এবার তাতেও পড়তে চলেছে সেন্সরবোর্ডের কাঁচি।
সম্প্রতি সেন্ট্রাল বোর্ড অব ফিল্ম সার্টিফিকেশন (CBFC) ও কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে। CBFC দেশের সমস্ত চিত্র পরিচালক ও প্রযোজকদের বাধ্যতামূলকভাবে একটি চুক্তিতে স্বাক্ষর করতে বলেছে। যেখানে বলা থাকবে, কোনো ফিল্মের আনকাট-আনসেন্সরড অংশের ক্লিপিংস দিয়ে কোথাও প্রচার চালাতে পারবেন না পরিচালক ও প্রযোজকরা। এতদিন ইন্টারনেটে দেওয়া প্রোমো বা টিজারের ক্ষেত্রে ফিল্মের আনকাট ভার্সান ব্যবহার করার উপর কোনো বিধিনিষেধ ছিল না। এর ফলে ফেসবুকসহ ইন্টারনেটের বিভিন্ন মাধ্যমে ফিল্মের আনসেন্সরড প্রোমো বা টিজারের মাধ্যমে প্রচার চালাতে পারতেন পরিচালক ও প্রযোজকরা। এমনকী কোনো চলচ্চিত্র উত্‍‌সবেও আনকাট ফিল্ম দেখানোয় বাধা ছিল না। তবে, নতুন সিদ্ধান্তে একজন শিল্পীর ভাবনাচিন্তার অধিকার খর্ব হবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন ফিল্ম ফ্রেটারনিটির মানুষজন।
কসমিক সেক্সের পরিচালক অমিতাভ চক্রবর্তী বলেছেন, 'আমিও আমার ফিল্মের জন্য এটা করে থাকি। ট্রেলরের ক্ষেত্রেও এমনটাই করা হয়।' এই সিদ্ধান্তের ফলে বিদেশি ওয়েবসাইটেও ফিল্মের কোনো নির্দিষ্ট অংশ পরিচালকরা ব্যবহার করতে পারবেন না বলে আক্ষেপ প্রকাশ করেছেন তিনি।
গান্ডু, কসমিক সেক্স খ্যাত অভিনেত্রী ঋ বলেছেন, 'আমি যে ফিল্মগুলি করি, সেগুলো ইন্টারনেটের দর্শকরা দেখেন। এই নয়া সিদ্ধান্ত আমাদের কোণঠাসা করবে। আমি সত্যিই জানি না, কীভাবে আপলোড করা আনসেন্সরড অংশের উপর নজরদারি চালানো হবে।' এ প্রসঙ্গে CBFC-র আঞ্চলিক উপদেষ্টা কমিটির সদস্য মালা দত্তঘোষ জানিয়েছেন, 'কলকাতায় আমাদের এখনও এই নয়া সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়নি। সিদ্ধান্তটি পড়ার পরই এ বিষয়ে কিছু বলতে পারব।'

সূত্র: এই সময়

মন্তব্য