kalerkantho

উপজেলায় ভোট

ঈশ্বরদীতে গ্রেপ্তার আতঙ্কে বিদ্রোহীর সমর্থকগণ!

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি   

১৭ মার্চ, ২০১৯ ২১:৩৯ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



ঈশ্বরদীতে গ্রেপ্তার আতঙ্কে বিদ্রোহীর সমর্থকগণ!

দ্বিতীয়ধাপে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ঈশ্বরদীতে কাল সোমবার ভোট। পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেওয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। আর ভোটের জন্য ইতোমধ্যেই কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে ব্যালট পেপার, বাক্স, সিলসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র।

প্রিজাইটিং ও সহকারী প্রিজাইটিং কর্মকর্তাদের সঙ্গে ব্যালট বাক্সের নিরাপত্তার জন্য প্রেরণ করা হয়েছে পুলিশ, আনছার সদস্যদের। আর ঝুঁকিপূর্ণ ১৪ কেন্দ্রের জন্য নেওয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তার ব্যবস্থা। একই সাথে দলীয় প্রতিক নৌকার বিপক্ষে থাকা বিদ্রোহী প্রার্থীর আনারস প্রতীকে পক্ষে নির্বাচনে প্রচার প্রচারণায় থাকায় ইতোমধ্যে আওয়ামী লীগের একাংশের নেতাকর্মীদের কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তল্লাশি চালানো হচ্ছে বাকি নেতাকর্মীদের বাড়িতে বাড়িতে। এই জন্য আতঙ্কিত বিদ্রোহী প্রার্থী আনারস প্রতীকের সমর্থকগণ।

উপজেলা সহকারী রিটার্নিং অফিস, থানা পুলিশ ও আওয়ামী লীগের একাংশের সূত্রে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

এবার ঈশ্বরদী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৪ জন, ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে ৮ জন এবং ভাইস চেয়ারম্যান (মহিলা) পদে ৭ জন প্রার্থী হয়েছেন। এরা হলেন আওয়ামী লীগের দলীয় নৌকা প্রতীক নিয়ে নুরুজ্জামান বিশ্বাস, বর্তমান চেয়ারম্যান দলীয় বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মকলেছুর রহমান মিন্টু (আনারস), উপজেলা বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি ছলিমপুর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আতিয়ার রহমান (মোটরসাইকেল) এবং মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল (দোয়াত-কলম), পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান রিপন বিশ্বাস (টিউবওয়েল), মেহেদী হাসান লিখন (বৈদ্যুতিক বাল্ব), আব্দুর রহমান মিলন (উড়োজাহাজ), ময়নুল ইসলাম লাহেড়ী মিন্টু (তালা), নায়েক (অব.) এম এ কাদের (চশমা), আব্দুস সালাম খান (মাইক), আজিজুল রহমান চঞ্চল (টিয়া) ও ইমরুল কায়েস দারা (বই) এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান চেয়ারম্যান মাহমুদা বেগম (সেলাই মেশিন), আতিয়া ফেরদৌস কাকলী (কলস), মাহজেবিন শিরিন পিয়া (ফুটবল), ছাবিনা ইয়াসমিন (হাঁস), ফেরদৌস আরা বেবি (প্রজাপতি), জান্নাতুল ফেরদৌস রুনু (বৈদ্যুতিক পাখা) ও সুমাইয়া সুলতানা হ্যাপী (পদ্মফুল) প্রতিক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

স্ব-স্ব প্রার্থী নিজেদের প্রতিক নিয়ে জনগণের দ্বারে দ্বারে গিয়ে নিজেদের যোগ্যতা তুলে ধরে ও নানা রকম প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোট ভিক্ষার কাজ শেষ করেছেন। কাল ভোট।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্র মতে, ঈশ্বরদী উপজেলায় ৮৪ টি ভোট কেন্দ্রে ৫৬৫ টি বুথে রয়েছে। মোট ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ৪৩ হাজার ৩৮৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ২২ হাজার ৮৭৬ জন এবং মহিলা ভোটার রয়েছেন ১ লাখ ২০ হাজার ৫১২ জন।

এদিকে পুলিশ ও র‌্যাব ইতোমধ্যেই আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মকলেছুর রহমান মিন্টুর আনারস প্রতীকের সমর্থকদের বাড়িতে বাড়িতে অভিযান চালিয়েছেন। মুলাডুলি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন মিঠুকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। 

এই বিষয়ে জানতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মকলেছুর রহমান মিন্টুর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে মোবাইল ফোনে কালের কণ্ঠকে জানান, বিষয়টি উদ্বেগের। এই মহুর্তে কোনো মন্তব্য করতে চাচ্ছি না। শুধু পর্যবেক্ষণ করছি। দেখা যাক শেষ পর্যন্ত ভোটের মাঠে কার জিত হয়!

উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার জিন্নাত আরা জলি কালের কণ্ঠকে জানান, ভোট গ্রহণের সকল প্রস্তুতি শেষ করা হয়েছে। ভোট কেন্দ্রগুলো ব্যালট, বাক্স, নিরাপত্তা বাহিনী, প্রিজাইটিং ও সহকারী প্রিজাইটিং কর্মকর্তাদের প্রেরণ করা হয়েছে।

ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি তদন্ত) শামসুল আলম কালের কণ্ঠকে জানান, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কেন্দ্রগুলোতে সর্বচ্চো নিরাপত্তা দিতে প্রতিটি কেন্দ্রে আনসার সদস্য ছাড়াও একজন কর্মকর্তাসহ ১৪জন পুলিশ সদস্য, ১৪ টি মোবাইল টিম, ৪ টি স্টাইকিং ফোর্স এবং ম্যাজিস্ট্রেটসহ আরো ৪টি টিম সার্বক্ষণিক মাঠে থাকবে।

মন্তব্য