kalerkantho

ফরিদগঞ্জে নৌকার মিছিলে প্রতিপক্ষ প্রার্থীর গুলি

চাঁদপুর প্রতিনিধি   

১৭ মার্চ, ২০১৯ ১১:৪৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ফরিদগঞ্জে নৌকার মিছিলে প্রতিপক্ষ প্রার্থীর গুলি

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলা নির্বাচনে আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী তোফায়েল আহাম্মেদ ভূঁইয়া নৌকা প্রতীকের কর্মীদের লক্ষ্য করে গুলি বর্ষণ করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল শনিবার বিকেলে উপজেলার রূপসা পশ্চিম ইউনিয়নের সর্দার পাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এদিকে, এই ঘটনায় নৌকা প্রতীকের  প্রার্থী জাহিদুল ইসলাম রোমানের পক্ষে মনির হোসেন বাদী হয়ে ফরিদগঞ্জ থানায়, রিটার্নিং কর্মকর্তা এবং সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। 

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী জাহিদুল ইসলাম রোমানের সমর্থনে গণসংযোগ কর্মসূচির অংশ হিসেবে গতকাল শনিবার আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগসহ অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা রূপসা পশ্চিম ইউনিয়নের রূপসা বাজারে এবং আশপাশের এলাকায় গণসংযোগ ও মিছিল করছিলেন। ওই দিন বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ইউনিয়নের সর্দার পাড়া এলাকায় নৌকা প্রতীকের কর্মী-সমর্থকদের গণসংযোগকালে একই স্থান দিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী তোফায়েল আহাম্মদ ভূঁইয়া তার কিছু কর্মী নিয়ে মিছিল করে যাচ্ছিলেন। তখন উভয় পক্ষের কর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। এ সময় কিছু বুঝে ওঠার আগেই আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী তোফায়েল আহাম্মেদ ভূঁইয়া নিজেই পিস্তল দিয়ে নৌকা প্রতীকের কর্মীদের লক্ষ্য করে গুলি চালায়। একই সঙ্গে তোফায়েল আহাম্মেদ ভূঁইয়ার সঙ্গী এক যুবক শটগান দিয়ে নৌকার কর্মীদের ওপর গুলি বর্ষণ করতে থাকে। এ সময় কর্মীরা দৌড়িয়ে পাশের পুকুরে ঝাঁপিয়ে পড়ে। কর্মী-সমর্থক ও গ্রামবাসী একত্রিত হয়ে তোফায়েল আহাম্মেদ ও তার সহযোগীদের ধাওয়া করে। এমন পরিস্থিতিতে ধাওয়ার মুখে তোফায়েল আহম্মেদ ভূঁইয়া ও তার লোকজন গুলি করতে করতে পালিয়ে যায়।

এদিকে, ঘটনার খবর পেয়ে চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান ঘটনাস্থলে যান। এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুনুর রশিদ চৌধুরীর সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, নৌকা ও আনারস প্রতীকের কর্মীরা মুখোমুখি হলে উভয়ের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া হয়। একপর্যায়ে আনারস প্রতীকের প্রার্থী তোফায়েল আহম্মেদের গানম্যান অস্ত্র দিয়ে ২ রাউন্ড গুলি চালায়। ওসি আরো বলেন, প্রার্থীর লাইসেন্সধারী অস্ত্র হলেও তিনি নির্বাচনের সময় গুলি চালাতে পারেন না। এটা নির্বাচন আচরণবিধির লঙ্ঘন।

এ ঘটনার বিষয়ে আনারস প্রতীকের প্রার্থী তোফায়েল আহাম্মেদের বক্তব্য নেওয়ার জন্যে তাকে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগ করেও পাওয়া যায়নি। 

অন্যদিকে, ঘটনায় সংক্ষুব্ধ নকা প্রতীকের প্রার্থী জাহিদুল ইসলাম রোমানে সমন্বয়ক এবং হামলার শিকার ফরিদগঞ্জ পৌর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন গতকাল শনিবার রাতে বাদী হয়ে ফরিদগঞ্জ থানায়, রিটার্নিং কর্মকর্তা এবং সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন। 

প্রসঙ্গত, আগামী ২৪ মার্চ চাঁদপুরের ৭টি উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। এর মধ্যে ফরিদগঞ্জ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে মোট তিন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এদের মধ্যে নৌকা প্রতীকের জাহিদুল ইসলাম রোমান জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি, আনারস প্রতীকের তোফায়েল আহম্মেদ ভূঁইয়া ঢাকা মহানগরীর যুবলীগ নেতা অন্যজন জাতীয় পার্টি সমর্থিত আব্দুল গনি। 

মন্তব্য