kalerkantho

জানা-অজানা

অপারেশন সার্চলাইট

[পঞ্চম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় বইয়ে ‘অপারেশন সার্চলাইট’-এর কথা উল্লেখ আছে]

ইন্দ্রজিৎ মণ্ডল   

২৫ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অপারেশন সার্চলাইট

অপারেশন সার্চলাইট (Operation Searchlight) বলতে ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর পরিকল্পিত গণহত্যাকে বোঝায়। এ অপারেশনের উদ্দেশ্য ছিল ঢাকাসহ তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের (বর্তমান বাংলাদেশ) প্রধান শহরগুলোতে বিশিষ্ট আওয়ামী লীগ নেতা ও ছাত্রনেতাদের এবং বাঙালি বুদ্ধিজীবীদের গ্রেপ্তার ও প্রয়োজনে হত্যা করে বাঙালিদের দুর্বল করে দেওয়া। পাশাপাশি সামরিক, আধা সামরিক ও পুলিশ বাহিনীর বাঙালি সদস্যদের নিরস্ত্র করে অস্ত্রাগার, রেডিও ও টেলিফোন এক্সচেঞ্জ দখলসহ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে পরিচালিত অসহযোগ আন্দোলন কঠোর হস্তে দমন করে প্রদেশে পাকিস্তান সরকারের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করা।

১৯৭১ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তান সশস্ত্র বাহিনীর এক বৈঠকে গৃহীত প্রস্তাবনার ভিত্তিতে মার্চের শুরুতে ১৪তম ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল খাদিম হুসাইন রাজা এবং মেজর জেনারেল রাও ফরমান আলি অপারেশনের মূল পরিকল্পনা তৈরি করেন। পরিকল্পনাটি জেনারেল ফরমান নিজ হাতে হালকা নীল রঙের একটি অফিস প্যাডে পাঁচ পাতাজুড়ে লিড পেনসিল দিয়ে লিখে নেন। ঢাকার সৈন্যদের কমান্ডে ছিলেন রাও ফরমান আলি নিজে এবং অন্য সব স্থানের সৈন্যদের কমান্ডে ছিলেন জেনারেল খাদেম। জেনারেল টিক্কা ও তাঁর কর্মকর্তারা ৩১তম কমান্ড সেন্টারের সব কিছু তদারকি করা এবং ১৪তম ডিভিশনের কর্মকর্তাদের সহযোগিতা করার উদ্দেশ্যে ঢাকায় উপস্থিত ছিলেন। এই ভয়াবহ গণহত্যা ১৯৭১ সালের বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সূত্রপাত ঘটায় এবং এর ফলে ১৯৭১ সালের ১৬ই ডিসেম্বর বাংলাদেশ স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়।

     

 

 

মন্তব্য