kalerkantho

জানা-অজানা

তিতাস

[নবম-দশম শ্রেণির ভূগোল ও পরিবেশ বইয়ে তিতাস নদীর কথা উল্লেখ আছে]

২০ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



তিতাস

বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাংশের প্রবহমান নদী তিতাস। এটি একটি আন্তঃসীমানা (বাংলাদেশ-ভারতের) সংশ্লিষ্ট নদী। উৎপত্তি ভারতের ত্রিপুরায়। সেখানে এটিকে বাংলা ভাষায় ডাকা হয় হাওড়া এবং স্থানীয় কোকবোরোক ভাষায় সাঈদ্রা; কিন্তু বাংলাদেশে তিতাস নামেই পরিচিতি পেয়েছে। নদীটি ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলার কাছাকাছি প্রবাহিত হয়ে বাংলাদেশের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলা দিয়ে প্রবেশ করে মেঘনার সঙ্গে মিলিত হয়েছে। তিতাসের গড় দৈর্ঘ্য প্রায় ৯৮ কিলোমিটার। তিতাস নদীর উপকূলে প্রাপ্ত গ্যাসক্ষেত্রটি তিতাস গ্যাসক্ষেত্র নামে পরিচিত। তিতাস নদীতীরবর্তী এলাকায় অবস্থানরত জেলে সম্প্রদায়ের বসবাস। তাদের জীবনসংগ্রামকে কেন্দ্র করে বিখ্যাত ঔপন্যাসিক অদ্বৈত মল্লবর্মণ রচনা করেছেন ‘তিতাস একটি নদীর নাম’ শীর্ষক উপন্যাস। পরে এটিকে অবলম্বন করে বিখ্যাত পরিচালক ঋত্বিক ঘটক চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন (১৯৭৩)।            

♦ আব্দুর রাজ্জাক

মন্তব্য