kalerkantho


পাথর সরিয়ে দ্যাখো

আসাদ মান্নান

১৭ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



(প্রিয় কবি মাকিদ হায়দার অগ্রজবরেষু)

 

পাথর ভাঙতে গিয়ে তুমি খুকু ভেঙে ফেললে স্বপ্নের আকাশ—

গোলাপ ছিঁড়তে গিয়ে কা’র ভুলে ছিঁড়ে ফেললে আপন সম্ভ্রম!

ডোবাকে সমুদ্র ভেবে তার জলে কেন যে ভাসালে

হৃদয়ের সপ্তডিঙ্গা তার সঙ্গে সওদাগরি নাও?

 

অভিমানে চলে গেলে স্বনির্মিত দূর নির্বাসনে :

চুম্বন মথিত ভালোবাসা মণি-মুক্তো মদির সংসার

কিছুই পাওনি, শুধু পেয়েছিলে মৃত সব ঝিনুকের খোসা;

বেদনার অনির্বাণ কুপি জ্বেলে আরতির ছলে

অদৃশ্য মন্দিরে তুমি পুজো দিলে পাথরের ফুলে—

পাথরে পাথর মিলে হায়! ঐ হৃদয়ে হৃদয় মেলেনি।

যে তুমি আগুনে পুড়ে পুড়ে অহোরহ কবিকে পোড়ালে

জীবনের বৈঠা হাতে সে এখন পাড়ি দিচ্ছে মরণের নদী

তুমি তো পাথর ভেঙে তৈরি করছো নৈঃশব্দ্যের মহা ইমারত।

 

বসন্তে পাথর হয়ে গাছে গাছে ঝুলে আছে ফুলেল বালিকা;

নির্বাসিত সময়ের ঢাকনা খুলে তুমি উঠে আসো

সঘন মেঘের হাতে জল নিয়ে :

এ জন্মে পাথর হোক আমাদের যৌথ বিনিয়োগ,

অন্য জন্মে বকুলের মালা নিয়ে যদি তুমি ফিরে আসো, তবে

পাথর সরিয়ে দ্যাখো

সেই মৃত কবি আগুনের দহনকলায় শুয়ে আছে, একদিন

যে কবি নদীর কাছে ভিক্ষা চায় জল নয়, জলের মহিমা।


মন্তব্য