kalerkantho


স্মরণ

সমরেশ বসু

১০ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



সমরেশ বসু

সমরেশ বসুর জন্ম ১১ ডিসেম্বর ১৯২৪ সালে বিক্রমপুরে। তাঁর শৈশব কাটে বাংলাদেশের বিক্রমপুরে আর কৈশোর কাটে কলকাতার নৈহাটিতে।

কালকূট ও ভ্রমর তাঁর ছদ্মনাম। বিচিত্র সব অভিজ্ঞতায় তাঁর জীবন পরিপূর্ণ। একসময় মাথায় ফেরি করে ডিম বেচতেন। ১৯৪৩ থেকে ১৯৪৯ সাল পর্যন্ত তিনি ইছাপুরের গান ফ্যাক্টরিতে কাজ করেন। ট্রেড ইউনিয়ন ও কমিউনিস্ট পার্টির একজন সক্রিয় সদস্য ছিলেন তিনি। এ কারণে তাঁকে ১৯৪৯-৫০ সালে জেলও খাটতে হয়েছে। জেলখানায় থাকাকালীন প্রথম উপন্যাস ‘উত্তরঙ্গ’ লেখেন। তাঁর উল্লেখযোগ্য গ্রন্থের মধ্যে উপন্যাস—উত্তরঙ্গ, গঙ্গা, বিবর, প্রজাপতি, দেখি নাই ফিরে, কোথায় পাবো তারে, নয়নপুরের মাটি, চলো মন রূপনগরে, পাতক, সুচাঁদের স্বদেশযাত্রা, মহাকালের রথের ঘোড়া, শেকল ছেঁড়া হাতের খোঁজে, কে নেবে মোরে, ছায়া ঢাকা মন, তিন পুরুষ, দাহ,  প্রাণ প্রতিমা, বাঘিনী, ভানুমতী ও ভানুমতীর নবরঙ্গ, রক্তিম বসন্ত, শিমুলগড়ের খুনে ভূত, সেই গাড়ির খোঁজে, স্বর্ণচঞ্চু, হৃদয়ের মুখ; গল্পগ্রন্থ—মনোমুকুর। তিনি সাহিত্য আকাদেমি ও আনন্দ পুরস্কার পান। ১২ মার্চ ১৯৮৮ সালে তিনি মারা যান।


মন্তব্য