kalerkantho


পরাগে পরাগে

আকাশলীনা

২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



তুমি আমার ঘরে এলে সারা ঘর মাধবী ঘ্রাণে ভরে যায়।

এবার থেকে তোমাকে মাধব বলেই ডাকব।

ঝিনুকের দুভাঁজে খুলে রেখেছে যে নিবিড় বন্ধন,

আজ ইতিহাসের আকর্ষণ অনুমতি দেবে এক গণ্ডূষ

সূর্যাস্তের আভা পান করতে।

তোমার বিকেল কত চুপচাপ, পলাতক চোখে শান্ত উচ্চারণ।

আমার পরাগে পরাগে এলোমেলো নাগরিক জ্যোত্স্না।

এমন অবেলায় এলে হে যখন তাত এসেছে ঝিমিয়ে!

সেই কবে স্নিগ্ধ হয়েছিলাম একটি বৃষ্টি দিনে!

এখন শ্রাবণ চায় অবুঝ গভীরে।

মেঘ কি জমেছে আবহাওয়াই?

সব অভিমান রোদ্দুরে শুকিয়ে গেছে বিবর্ণ সমর্থনে।

ইচ্ছে করে দুষ্টু বালিকার মতো

অগ্নিসংযোগ কবি ব্রহ্মপুত্র নদ থেকে সদ্য স্নান সেরে

উঠে আসা ভিজে শরীরে।

আমার মোহন মন্ত্র, অনিশ্চয়তার রাত,

সাজানো বিছানা, নিষ্ঠাবান সময়, নদীর

অভ্যন্তরের লাভাস্রোত,

ভূকম্পে দুলে ওঠা কর্কটক্রান্তিরেখা দুই ভাগ

করে তোমাকেই ডাকছে ‘হে মাধব’।

 


মন্তব্য