kalerkantho


ম্যাজিসিয়ান

শাহাবুদ্দীন নাগরী

৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



আমি তোমার ম্যাজিক দেখে অবাক হয়ে যাচ্ছি।

হাতের মুঠোয় রাখা পাথর

        তুমি চুম্বনে বানিয়ে দিলে পাখি,

আমার চোখের সামনে জানালা দিয়ে

              উড়ে গেল পাখিটা, অবিশ্বাস্য!

তুমি আমার ট্রাউজারের এক পকেটে

                    সোনামুখী সুঁই রেখে দিলে,

তারপর কী সব আউড়ে গেলে দ্রুততার সাথে

আমি তার কিছুই বুঝলাম না, তবে দেখলাম,

আমার অন্য পকেট থেকে বের করে আনলে

                             একটা ধাতব পিস্তল,

তোমার সহকারী সেই পিস্তল

জমা করল পুলিশের খাতায়, আমার বিরুদ্ধে

অস্ত্র আইনে শুরু হয়ে গেল মামলার প্রস্তুতি।

আমার আঙুলের সোনার আংটিটা খুলে নিয়ে বললে

        এটা তোমার হাতব্যাগের ভেতর রেখে দাও,

আমি বাধ্য বালকের মতো তা-ই করলাম।

তুমি ব্যাগের ওপর ঠোঁট ঘষতে ঘষতে একসময়

                    দাঁত দিয়ে চিরে ফেললে ব্যাগটা,

ব্যাগের ভেতর থেকে সোনাব্যাঙের মতো লাফিয়ে লাফিয়ে

পড়ল প্রতিটি দশ গ্রাম ওজনের দশটি সোনার বার,

তুমি বললে এগুলোর মালিক তুমি। নিয়ে যাও।

আমি খুশি হবার আগেই গোয়েন্দারা এসে

                   আমার হাতে পরিয়ে দিল হাতকড়া।

 

তবুও তোমার ম্যাজিকে আমি মুগ্ধ হচ্ছি প্রতিদিন.. .. ..

কারো বিনাশ কাউকে বানিয়ে দেয় বড় ম্যাজিসিয়ান।


মন্তব্য