kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৭ জানুয়ারি ২০১৭ । ৪ মাঘ ১৪২৩। ১৮ রবিউস সানি ১৪৩৮।


অদ্ভুত অভ্যাস

গ্রাহাম গ্রিনের বাতিক

১ এপ্রিল, ২০১৬ ০০:০০



গ্রাহাম গ্রিনের বাতিক

কথাসাহিত্যিক, নাট্যকার গ্রাহাম গ্রিনের জীবনের কিছু বিষয় নানা রকম বিতর্ক ও কৌতূহলের জন্ম দিয়েছে অনেকের মনেই।   প্রায় ৬০ বছরের অধিক সময় গ্রাহাম গ্রিনের যে প্রতিমূর্তি তৈরি হয়েছে তাতে দেখা যায়, তিনি একজন অটল ক্যাথলিকপ্রেমী। তাঁর চরিত্রের মধ্যে ক্যাথলিকপ্রীতি বেশ লক্ষণীয়। ১৯৫৩ সালে ‘দ্য লিভিং রুম’ দর্শকদের সামনে আসার পর অন্য ধরনের বিশ্বাসীদের কাছেও তাঁর লেখা আগ্রহ তৈরি করতে শুরু করে। তবু অনেকেই মনে করেন, তাঁর লেখার প্রধান উদ্দেশ্য ক্যাথলিক পাঠকরা, তারপর অন্য ধরনের পাঠকরা। তাঁর ‘পাওয়ার অ্যান্ড গ্লোরি’র চরিত্র হুইস্কি প্রিস্টের চরিত্রে, ‘হার্ট অব দ্য ম্যাটার’-এর স্কবির চরিত্রে, ‘দি অ্যান্ড অব দ্য অ্যাফেয়ার’-এর সারার মধ্যে এবং ‘দ্য লিভিং রুম’-এর পেম্বারটনের চরিত্রের ভেতর দিয়ে বের হয়েছে তাঁর ক্যাথলিক বাতিকের চিত্র। ইচ্ছাকৃতভাবেই তিনি ক্যাথলিক আবহ বেছে নিয়েছেন লেখার পটভূমি হিসেবে। তবে পরিবার-পরিজন ও ঘনিষ্ঠজনরা জানতেন, তাঁর ক্যাথলিকপ্রীতির মধ্যে বিশেষ উদ্দেশ্য আছে। পছন্দের নারী ভিভিয়েন ডেরিল ব্রাউনিংকে পাওয়ার জন্যই তিনি ক্যাথলিক পথের অনুসারী হয়েছিলেন।   চারিত্র্যিক নিষ্ঠাহীনতার বিষয়টিও তাঁর মধ্যে বাতিকের পর্যায়েই পড়ে। গ্রিন তাঁর স্ত্রী এবং সন্তানদের ছেড়ে যান অন্য নারীতে আসক্ত হওয়ার পরে। আর যেসব নারীর পেছনে তিনি ছুটেছেন, তাঁদের বেশির ভাগই ছিলেন বিবাহিত। গ্রিনের চরিত্রে স্ববিরোধিতার দিকটিও প্রকট ছিল অনেক ক্ষেত্রেই। যেমন তিনি আমেরিকার সাম্রাজ্যবাদের নিন্দা করেছেন। তবে আমেরিকার হলিউডের বাজার থেকে বিপুল পরিমাণ ডলার আয় করেছেন চলচ্চিত্রের মাধ্যমে। এর চেয়েও বড় কথা হলো, সাম্রাজ্যবাদের প্রতি ওপরে ওপরে নিন্দা জানালেও তিনি সামরিক স্বৈরশাসকদের কারো কারো প্রতি জোর সমর্থন দিয়েছেন। পানামার নরিয়েগা শাসনক্ষমতা দখল করেছিলেন অবৈধভাবে। সেই নরিয়েগার জন্য সমর্থন ছিল গ্রিনের। গ্রিনের বাতিকের সবচেয়ে হালকা ও হাস্যকর একটি উদাহরণ হলো—সংখ্যার প্রতি তাঁর মনোযোগ। সংখ্যা গণনায় ব্যস্ত থাকতেন অনেক সময়ই। এমনকি রাস্তায় বের হলে অন্য সব গাড়ির নম্বরপ্লেটে লেখা সংখ্যাগুলোও তিনি গুনতে থাকতেন। একসময় সংখ্যা ছাড়া এমনি এমনি কোনো বাক্য তৈরি করতেও পারতেন না তিনি।  

 দুলাল আল মনসুর


মন্তব্য