kalerkantho


দ্রুতই মুছে যেতে পারে ডাবল ডেকার ভলভো বাসের শেষ চিহ্নটিও!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ আগস্ট, ২০১৭ ১০:৩০



দ্রুতই মুছে যেতে পারে ডাবল ডেকার ভলভো বাসের শেষ চিহ্নটিও!

ফাইল ছবি

অবহেলা আর রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে সুইডেন থেকে কেনা বিলাসবহুল ৫০টি ভলভো বাসের শেষ চিহ্নটিও দ্রুতই মুছে যাওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। এসব অত্যাধুনিক বাস আর ঢাকা নগরীতে দেখা যায় না। তবে ৫০টির মধ্যে একটিমাত্র বাস এখনও ধুঁকে ধুঁকে চলছে মিরপুর থেকে হাইকোর্ট পর্যন্ত।  

কোটি টাকা মূল্যের বাকি বাসগুলো পড়ে আছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশনের (বিআরটিসি) গাজীপুরের নাগরপাড়া সমন্বিত কেন্দ্রীয় বাস মেরামত কারখানা, মিরপুর ও শ্যামলী ডিপোতে। তাও সেই বাসগুলোর নিচের অংশে লতাপাতা ও আগাছা এবং ওপরের অংশ বৃক্ষরাজিতে বন্দি। এতে আরও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বাসগুলো।

মিরপুর ডিপোর কর্মকর্তাদের সূত্রে জানা গেছে, বিলাসবহুল বাসগুলো ডাম্পিং করে রাখা হয়েছে।  

এ প্রসঙ্গে মিরপুর ডিপোর ম্যানেজার মো. মনিরুজ্জামান বলেন, 'মেরামত করে জোড়াতালি দিয়ে সচল রাখা ভলভোটি সুপ্রিম কোর্টের স্টাফ বাস হিসেবে চলছে। সেটিকে রানিং রাখতে সব সময়ই মেরামত করা হচ্ছে। কখন বন্ধ হয়ে যাবে, কে জানে!'

বাকি ৪৯টি ভলভো প্রসঙ্গে ম্যানেজার বলেন, 'সেগুলোকে আর সচল করা যাবে কি-না- সংশয় রয়ে গেছে। '

এদিকে ভলভো বাসগুলোর কোনো খবর রাখছে না পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ (আইএমইডি)।

সেগুলোর সর্বশেষ অবস্থা নিয়ে সরেজমিন প্রতিবেদনও করেনি সংস্থাটি।

এ বিষয়ে আইএমইডির পরিবহন শাখার সহকারী পরিচালক প্রকৌশলী মোহাম্মদ তানভীর আক্কাস বলেন, 'ভলভো বাসগুলোর সর্বশেষ তথ্য আমাদের কাছে নেই। অনেক আগে কেনায় সেগুলো এখন রাজস্বের আওতায় চলে গেছে। এর হিসাবও তাই আমাদের কাছে রাখা হয় না। '

উল্লেখ্য, সরকারি তহবিল ও সুইডিশ ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট এজেন্সির (সিডা) অর্থায়নে এসব বিলাসবহুল ডাবল ডেকার বাস কেনা হয়েছিল।


মন্তব্য