kalerkantho


নগরজীবন

ঢাকায় কেউ থাকে সাততলায় কেউ গাছতলায়

মো. হানিফ মিয়া
শ্রমিক, কারওয়ান বাজার, ঢাকা

৮ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



ঢাকায় কেউ থাকে সাততলায় কেউ গাছতলায়

কেমন আছেন?

শরীরডা ভালা না। জ্বর আইছে কয় দিন হইল।

ওষুধ খাচ্ছি, এই ভালো তো এই মন্দ! শরীর খারাপ লইয়াও কাজে আইছি।

 

শরীর খারাপের মধ্যেও কাজে এলেন?

কী করব—পেট আছে, পেটে খিদা আছে। এক দিন কাজ না করলে তো আমার কষ্ট, পরিবারেরও কষ্ট। জমানো কোনো টাকা থাকে না। বিপদ-আপদে একটু বইয়া খামু, সেই উপায়ও নাই।

 

কারওয়ান বাজারে কী কাজ করতে হয়?

বিভিন্ন এলাকা থাইকা ট্রাক ভরে যে তরিতরকারি আসে, সেইগুলান নামাইয়া ব্যাপারির গোডাউনে নিয়া যাই। একটা ট্রাকে ২০-৩০ খেপ করে হয়। প্রতি ঝুড়িতে পাঁচ টাকা করে দিলেও ১০০-১৫০ টাকা ইনকাম হয়।

 

ঢাকায় কবে এলেন?

পাঁচ বছর হইল।

গ্রামে অভাব-অনটন, বাড়ি থাইকা রাগ কইরা চইলা আইছি। তরকারির ট্রাকে ঢাকায় আইয়া পড়ছি, এরপর আর গ্রামে ফিরি নাই। দিনে ব্যাপারির আড়তে ঘুমাই, এক দিনের ভাড়া ৩৫ টাকা। আর কারওয়ান বাজারের হোটেলে খাই।

 

ঢাকার জীবন নিয়ে আপনার অনুভূতি কী?

আপনি এই বাজারডার কথা ভাবেন। কত মানুষ এখানে গিজগিজ করে। ঢাকায় অনেক মানুষ, এর মধ্যে ভালো মানুষ আছে, খারাপ মানুষও আছে। ঢাকার মানুষ অনেক ব্যস্ত, কেউ এক-দুই মিনিট সময় নষ্ট করতে চায় না। ঢাকায় মিনিটে মিনিটে ট্যাকা ইনকাম হয়!

 

ঢাকার এই ব্যস্ত জীবন কি ভালো লাগে?

ভালা না লাগলেও তো কিছু করার নাই। আমিও তো ব্যস্ত থাকি। যখন ট্রাক আসে, তখন তো কারো লগে কথা কইতে পারি না। মোবাইলে কল আইলেও কথা কইতে পারি না। ঢাকার মানুষ ব্যস্ত ট্যাকার লাইগা। ঢাকায় থাকতে হইলে আপনারে দৌড়ের ওপর থাকতে হইব। ইনকাম করতে হইব। খাওনের খরচ, থাকনের খরচ, বউ-পোলাপানের খরচ জুগাইতে হইব।

 

কারওয়ান বাজারের বাইরে কোথাও যান?

না। কোথাও যাওয়া হয় না। সব দিনই তো কাজ করি। কারওয়ান বাজার ছাড়া ঢাকায় আর কিছু দেখি নাই, কোথাও ঘুরতে গেলেও টাকা খরচ। গরিব মানুষের এত শখ থাকা ভালো না।

 

ঢাকার মানুষের জীবনযাপন কেমন দেখেন?

ঢাকায় গরিব মানুষের অনেক কষ্ট, তরিতরকারির অনেক দাম। মানুষ মনের মতো খাইতে পারে না, ভালো থাকতে হইলে একগুচ্ছেরেক ট্যাকা বাসাভাড়া দিতে হইব। ঢাকায় কেউ থাকে সাততলায়, কেউ গাছতলায়।

 

ঢাকায় আর কয় বছর থাকবেন?

ভাবতেছি। একবার মনে হয়, গ্রামে চইলা যাই। আবার ভাবি, গ্রামে গিয়া কী করুম! এখনো কোনো সিদ্ধান্ত লইতে পারি নাই। কপালে যা আছে তা-ই হইব। কয় বছর ঢাকায় আছি জানি না।

 

সাক্ষাৎকার গ্রহণে : কবীর আলমগীর

ছবি : জান্নাতুল ফেরদৌস শিপন


মন্তব্য