kalerkantho

ইরানের ‘আগ্রাসন’ রোধে নেতানিয়াহু পম্পেওর অঙ্গীকার

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২২ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইসরায়েলের সাধারণ নির্বাচনের আগমুহূর্তে দেশটি সফর করলেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। এ সময় ইরানি ‘আগ্রাসনের’ বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াইয়ের অঙ্গীকার করেন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু ও পম্পেও।

পম্পেও গত বুধবার ইসরায়েলে পৌঁছেন। তাঁর এ সফরে ইরান ইস্যু বেশ গুরুত্ব পায়। যদিও এ সফরকে ইসরায়েলের নির্বাচনে নেতানিয়াহুর প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থন হিসেবেই দেখা হচ্ছে। আগামী ৯ এপ্রিল অনুষ্ঠেয় ওই নির্বাচন নিয়ে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখে পড়তে যাচ্ছেন নেতানিয়াহু। বিশেষ করে দুর্নীতির মতো অভিযোগ তাঁর জয়ের পথে চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আগামী সপ্তাহে ট্রাম্পের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে ওয়াশিংটনে যাওয়ার কথা নেতানিয়াহুর।

পম্পেও ইসরায়েলে পৌঁছার পর নেতানিয়াহু বলেন, ‘ইসরায়েলের প্রধান শত্রু ইরানের বিরুদ্ধে ট্রাম্পের পদক্ষেপ এরই মধ্যে প্রভাব ফেলেছে।’ এ সময় তিনি ইরানের সঙ্গে পরমাণু চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সরে যাওয়ার প্রসঙ্গ টানেন। একই সঙ্গে তেহরানের ওপর ওয়াশিংটনের পুনঃনিষেধাজ্ঞার কথাও স্মরণ করেন।

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের এটি আরো বাড়াতে হবে, প্রসারিত করতে হবে। এই অঞ্চলে ও সারা বিশ্বে ইরানের আগ্রাসন রোধে যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েল ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করে যাচ্ছে।’

এ সময় ইসরায়েলকে ধ্বংস করার ইরানি হুমকি প্রসঙ্গে কথা বলেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। তিনি বলেন, ‘এ ধরনের হুমকি ইসরায়েলিদের জীবনের দৈনন্দিন বাস্তবতা। আমরা ইসরায়েলের নিরাপত্তার প্রশ্নে অকুণ্ঠ সমর্থন দিয়ে আসছি।’

নেতানিয়াহু বলেন, ‘আমরা স্বাধীনভাবে যেকোনো পদক্ষেপ নিতে পারি। এ ক্ষেত্রে অবশ্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রশংসা করতেই হয়, তাদের সমর্থন ছাড়া এটি সম্ভব ছিল না।’ সূত্র : এএফপি।

 

মন্তব্য