kalerkantho


ফিলিপাইনে মুসলিম অধ্যুষিত বাংসামোরোয় স্বায়ত্তশাসন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



ফিলিপাইনে মুসলিম অধ্যুষিত বাংসামোরোয় স্বায়ত্তশাসন

ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে গতকাল শুক্রবার বাংসামোরো অঞ্চলের শাসনভার মোরো ইসলামিক লিবারেশন ফ্রন্টের (এমআইএলএফ) নেতা মুরাদ ইব্রাহিমের হাতে তুলে দেন। এই উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এমআইএলএফ নেতাদের সঙ্গে দুতার্তে। ছবি : এএফপি

ফিলিপাইনের মুসলিম অধ্যুষিত বাংসামোরো অঞ্চলের শাসনভার গতকাল শুক্রবার আনুষ্ঠানিকভাবে সেখানকার বিদ্রোহী নেতাদের হাতে তুলে দেওয়া হলো। কয়েক দশক ধরে মোরো ইসলামিক লিবারেশন ফ্রন্ট (এমআইএলএফ) ওই অঞ্চলটির স্বায়ত্তশাসনের জন্য লড়াই করে আসছিল। জানুয়ারিতে সেখানে স্বায়ত্তশাসনের প্রশ্নে গণভোট অনুষ্ঠিত হয়। ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে ব্যক্তিগতভাবে বাংসামোরোর মুসলমান নেতা মুরাদ ইব্রাহিমকে শপথবাক্য পাঠ করান এবং তাঁকে অন্তর্বর্তী প্রধানমন্ত্রী নিয়োগ করেন।

গত জানুয়ারি মাসে ভোটাররা বাংসামোরো অঞ্চল গঠনের পক্ষে ভোট দেয়। এর পরই তাদের হাতে বাংসামারোর দায়িত্ব তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত ও চুক্তি হয়। এই চুক্তির মাধ্যমে ১৯৭০ দশক থেকে শুরু হওয়া বিচ্ছিন্নতাবাদীদের বিদ্রোহের অবসান হলো। দীর্ঘদিনের এই সংঘর্ষে এক লাখ ৫০ হাজার প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। বাংসামারো ফিলিপাইনের সবচেয়ে বেশি মুসলমান অধ্যুষিত অঞ্চল।

প্রেসিডেন্ট দুতার্তে এবং মোরো ইসলামিক লিবারেশন ফ্রন্টের (এমআইএলএফ) নেতা উভয়ই আশা করছেন চুক্তির ফলে মুসলমান অধ্যুষিত দক্ষিণাঞ্চলের রাজ্য মিন্দানাওতে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের উত্থান বন্ধ হবে। অনুষ্ঠানে এমআইএলএফ নেতারা অন্তর্বর্তী সরকারের অন্য সদস্যদের নির্বাচিত করেন। দুতার্তে তাদেরও শপথ পাঠ করার। অনুষ্ঠানে দুতার্তে বলেন, ‘শান্তির এই পথ দীর্ঘ ও বন্ধুর হতে পারে। তবে আমরা শেষ পর্যন্ত একটা চূড়ান্ত অবস্থানে পৌঁছাতে পেরেছি তাতেই আমি কৃতজ্ঞ। আমাদের বেশির ভাগই এই হানাহানি, যা মিন্দানাওকে শেষ করে দিয়েছে তার একটা শেষ দেখতে পছন্দ করি। এই হানাহানিতে অনেক প্রাণহানি হয়েছে।’

মুরাদ এবং তাঁর অন্তর্বর্তী সরকার একটি মন্ত্রিসভা গঠন করবে এবং আগামী ২০২২ সালে আঞ্চলিত পার্লামেন্ট ভোট হওয়ার আগ পর্যন্ত আইনও পাস করবে। এ সময়ের মধ্যে চুক্তি অনুসারে মুরাদের যোদ্ধারা অস্ত্র ত্যাগ করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

মিন্দানাও অঞ্চলে একটি ভিন্ন মুসলমান রাষ্ট্র গঠনের দাবি নিয়ে ১৯৭০ দশকের দিকে আন্দোলন শুরু হয়। পরে বিদ্রোহীরা স্বায়ত্তশাসন দাবি করে।

সূত্র : এএফপি।



মন্তব্য