kalerkantho


খাশোগি হত্যা

১৭ সৌদির ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৬ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকায় ১৭ সৌদির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। গতকাল বৃহস্পতিবারই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে মার্কিন অর্থ মন্ত্রণালয়। ওই নিষেধাজ্ঞার আওতায় আছেন সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সাবেক সহযোগী সৌদ আল কাহতানি এবং সৌদি কনসাল জেনারেল মোহাম্মদ আলোতায়িবি।

গ্লোবাল ম্যাগনিটস্কি হিউম্যান রাইটস অ্যাকাউন্টেবিলিটি অ্যাক্টের আওতায় ওই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। মানবাধিকার লঙ্ঘনের ক্ষেত্রে এ আইনের আওতায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়ে থাকে বলে জানান এক মার্কিন কর্মকর্তা।

অন্য যাঁরা নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়েছেন তাঁদের মধ্যে আছেন কাহতানির সহযোগী মাহের মুতারেব, সৌদি সরকারি কর্মকর্তা সালাহ তুবাইগি, মেশাল আলবোস্তানি, নাইফ আলারিফি, মোহাম্মদ আলজাহরানি প্রমুখ। এ বছর যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপে রাষ্ট্রীয় সফরকালে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে মুতারেবকে ছবিতে দেখা গেছে।

ব্যক্তিগত কাগজপত্র আনার প্রয়োজনে গত ২ অক্টেবর তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটে ঢোকার পর থেকে নিখোঁজ ছিলেন খ্যাতনামা সৌদি সাংবাদিক খাশোগি। শুরু থেকে তুরস্ক দাবি করে আসছে, খাসোগিকে কনস্যুলেট ভবনের ভেতর হত্যা করেছে সৌদি চররা। গত বছর সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান ক্ষমতা গ্রহণ করার পর রোষানলে পড়েন খাশোগি। তিনি দেশ ছেড়ে স্বেচ্ছা নির্বাসনে চলে যান যুক্তরাষ্ট্রে। ওয়াশিংটন পোস্টে যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের কর্মকাণ্ডের সমালোচনা করে একের পর এক কলাম লেখেন তিনি। অভিযোগ উঠেছে, যুবরাজের নির্দেশে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় খাশোগি হত্যা সংঘটিত হয়েছে। ভিন্নমতাবলম্বী এই সৌদি সাংবাদিকের হত্যাকাণ্ড নিয়ে সৌদি আরব একাধিকবার তাদের বিবৃতি পাল্টেছে। সব শেষে সৌদি আরব খাশোগি হত্যা পরিকল্পিত ছিল বলে স্বীকারও করেছে।

এদিকে সাংবাদিক জামাল খাশোগির মৃত্যুর বিষয়ে সৌদি আরবের বিবৃতিকে তুরস্ক অপর্যাপ্ত বলে মন্তব্য করেছে। একই সঙ্গে তারা এই হত্যাকাণ্ডকে পূর্বপরিকল্পিত বলেও অভিহিত করেছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসোগলু এক টেলিভিশন বক্তব্যে বলেছেন, ‘আমরা সব (সৌদি আরবের) পদক্ষেপকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছি। কিন্তু তা মোটেও পর্যাপ্ত নয়।’ সূত্র : সিএনএন, রয়টার্স অনলাইন ও  এএফপি।



মন্তব্য