kalerkantho


সবরীমালায় ঢুকতে পারেনি নারীরা বিক্ষোভকারীদের হটাল পুলিশ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



কয়েক দিন ধরে তুমুল বিক্ষোভের পর গতকাল বুধবার বিকেলে দরজা খোলে ভারতের কেরালা রাজ্যের বহুল আলোচিত সবরীমালা মন্দিরের। কিন্তু সেই মন্দিরের আয়াপ্পা গর্ভগৃহ তো দূরের কথা, মন্দিরের ভেতরেও ঢুকতে দেওয়া হয়নি নারীদের। আটকানো হয়েছে নারী সাংবাদিকদেরও। দরজা খোলার পর মা, বাবা, ছেলে-মেয়েকে নিয়ে ৪০ বছর বয়সী এক নারী পাহাড় বেয়ে ওঠার চেষ্টা করেছিলেন সবরীমালা মন্দিরে। কিন্তু বিক্ষোভকারীরা তাঁর পথ আটকায়। তাঁকে ফিরে আসতে বাধ্য করা হয়।

সুপ্রিম কোর্টের রায়ে ১০০ বছরের রীতি ভেঙে এই প্রথমবার কেরালার সবরীমালা মন্দিরে প্রবেশাধিকার পায় নারীরা। আর শতাব্দী প্রাচীন ধর্মীয় রীতিকে বাঁচাতে মরিয়া হাজার হাজার ভক্ত।

গতকাল যাতে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা আর না ঘটে, সে জন্য কড়া পুলিশ পাহারা ছিল গোটা এলাকায়। কিন্তু ‘সবরীমালা মন্দির বাঁচাও’ আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত বিক্ষোভকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাথর ছুড়তে শুরু করে। তখন পুলিশও লাঠি নিয়ে তেড়ে যায় বিক্ষোভকারীদের দিকে। পিছু ধাওয়া করে মন্দিরে প্রবেশপথের সামনের রাস্তা থেকে হটিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে বিক্ষোভকারীদের। বিক্ষোভকারীরা কিন্তু তার পরও ১০ থেকে ৫০ বছর বয়সী নারীদের মন্দিরে না ঢুকতে দেওয়ার দাবিতে অটল থাকে। বিকেল ৫টায় মন্দিরের দরজা খোলার আগে থেকেই ২০ কিলোমিটার দূরে নীলাক্কালের জঙ্গলে রাখা বেশ কয়েকটি বাসে বসে অপেক্ষা করছিল বিক্ষোভকারীরা। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে এদিন বিকেলে মন্দিরের দরজা খোলার সময় হতেই তারা এসে জড়ো হতে থাকে প্রবেশদ্বারের সামনে। পুলিশ কয়েকজন বিক্ষোভকারীকে গ্রেপ্তার করেছে। মন্দিরের সামনে জমায়েতও নিষিদ্ধ করা হয়েছে। সূত্র : আনন্দবাজার।

 



মন্তব্য