kalerkantho


‘মাস্তান’ যুক্তরাষ্ট্র হামলায় সাহায্য করেছে : রুহানি

ডেনমার্ক, নেদারল্যান্ডস ও ব্রিটেনের কূটনীতিককে তলব

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



‘মাস্তান’ যুক্তরাষ্ট্র হামলায় সাহায্য করেছে : রুহানি

ইরানে কুচকাওয়াজে সন্ত্রাসী হামলায় ২৯ জন নিহত হওয়ার পর দেশটির প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেছেন, ‘মাস্তান’ যুক্তরাষ্ট্রের সাহায্য নিয়ে জঙ্গিরা এ হামলা চালিয়েছে। তিনি আরো অভিযোগ করেন, ইসলামী প্রজাতন্ত্রে যুক্তরাষ্ট্র নিরাপত্তাহীনতা তৈরির চেষ্টা করছে। কড়া ভাষায় করা রুহানির এসব অভিযোগ ছাড়াও ইরান দেশটিতে নিযুক্ত ডেনমার্ক, নেদারল্যান্ডস ও ব্রিটেনের কূটনীতিককে তলব করে। ইরানের অভিযোগ, ওই সব দেশে হামলার সঙ্গে জড়িত সন্ত্রাসীদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দেওয়া হয়।

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে গতকাল নিউ ইয়র্কের উদ্দেশে রওনা দেন হাসান রুহানি। এর আগে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে রুহানি বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা নিয়ে উপসাগরীয় কয়েকটি দেশ গত শনিবারের হামলায় সহায়তা করেছে। সরকারবিরোধী জাতিগত আরব গ্রুপকে এই দেশগুলো সামরিক ও আর্থিক সহায়তা দিচ্ছে। 

রুহানি আরো বলেন, ‘এই অঞ্চলের ছোট ছোট পুতুল দেশগুলো যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগিতা নিয়ে তাদের (সন্ত্রাসী) প্রয়োজনীয় সাহায্য দিয়েছে।’ তিনি সতর্কতা উচ্চারণ করে বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রকে পস্তাতে হবে।’ শনিবারের হামলায় নিহতদের মধ্যে ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর ১২ সদস্য রয়েছেন। বেসামরিক নাগরিকদের মধ্যে এক শিশু এবং হুইলচেয়ার ব্যবহারকারী গার্ড বাহিনীর সাবেক এক সদস্যও রয়েছেন। এরই মধ্যে হামলার দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট। তবে ইরান মনে করে, এর সঙ্গে আরব বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী আহওয়াজি ডেমোক্রেটিক পপুলার ফ্রন্টেরও (এডিপিএফ) হাত রয়েছে।

সরকারি ওয়েবসাইটে দেওয়া এক বিবৃতিতে রুহানি আরো বলেন, ‘ক্ষুদ্রতম হুমকিকেও গুঁড়িয়ে দিয়ে এই হামলার জবাব দেবে ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরান। যারা এই হামলায় গোয়েন্দা ও প্রচারণায় সহযোগিতা করেছে তাদেরও এর জবাব দেওয়া হবে।’ টুইট বার্তায় তিনি আরো বলেন, ‘ইরানিদের জীবন রক্ষায় দ্রুত ও সুস্পষ্ট ব্যবস্থা নেবে ইরান।’ দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া অবশ্য এরই মধ্যে শুরু করে দিয়েছে তেহরান। গতকাল ডেনমার্ক, নেদারল্যান্ডস ও ব্রিটেনের তেহরানে নিযুক্ত কূটনীতিককে তলব করা হয়। এই দেশগুলোতে সন্ত্রাসীগোষ্ঠীর সদস্যরা অবস্থান করছে বলে তেহরানের অভিযোগ। এই দেশগুলোর বিরুদ্ধে তেহরান সন্ত্রাসবিরোধী লড়াইয়ে দ্বিমুখী ভূমিকা পালনের অভিযোগও করেছে। এডিপিএফ ইউরোপীয় ইউনিয়নের কালো তালিকাভুক্ত নয় বলেও তাদের অভিযোগ। সূত্র : এএফপি, রয়টার্স।



মন্তব্য