kalerkantho


সেতু আতঙ্কে ভুগছে কলকাতা

কলকাতা প্রতিনিধি   

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



সেতু আতঙ্কে ভুগছে কলকাতা

গত ৪ সেপ্টেম্বর কলকাতার মাঝেরহাট ব্রিজ ভেঙে পড়ে। এরপর প্রায় দুই সপ্তাহ কেটে গেছে। কিন্তু শহরের পথ চলতি মানুষের মনে সেতু নিয়ে শঙ্কার শেষ নেই। সামাজিক গণমাধ্যমে ঘুরছে অনেক জোকস। কোনো একটি সেতু বা উড়াল সেতুতে উঠলেই বা নিচ দিয়ে যাওয়ার সময় অনেকেরই বুক দুরুদুরু করছে।

শিয়ালদহ উড়াল সেতুর নিচের ফল বিক্রেতা বিমল মণ্ডল বলেন, ‘ভয় তো একটু করবেই...ওপরের ব্রিজ দিয়ে ট্রাক যাওয়ার সময় যে আওয়াজ হয়, তাতে মাঝে মাঝে মনে হয় ভেঙে পড়বে না তো?’

বেসরকারি সংস্থায় কর্মরত সুবর্ণ সাহা বলেন, ‘শহরের উত্তর, দক্ষিণ বা পশ্চিম—যেদিকেই যান না কেন, আপনাকে উড়াল সেতু ব্যবহার করতেই হবে। ভয় তো করবেই।’

গত কয়েক বছরে কলকাতায় ভেঙেছে তিনটি ব্রিজ—উল্টোডাঙ্গার নবনির্মিত উড়াল সেতু, পোস্তায় নির্মীয়মাণ উড়াল সেতু এবং অতিসম্প্রতি মাঝেরহাট উড়াল সেতু।

মাঝেরহাট ব্রিজ ভাঙার পর পশ্চিমবঙ্গের পূর্ত দপ্তর একটি সমীক্ষা চালায় এবং তাতে বলা হয়, শহর ও এর আশপাশে ২০টি ব্রিজের অবস্থা ভালো নয় এবং এগুলোর মধ্যে সাতটি ব্রিজকে ‘মোস্ট ভালনারেবল’ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

ব্রিজ নিয়ে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক এমন আকার ধারণ করেছে যে অনেক জায়গায়ই অটোরিকশাচালকরা উড়াল সেতুর নিচে অটোরিকশা রাখছেন না। শহরের অনেক জায়গায় যাঁরা উড়াল  সেতুর নিচে গাড়ি পার্ক করতেন, তাঁরাও অন্য জায়গা খুঁজছেন।

অবশ্য এক মনোরোগ বিশেষজ্ঞ বলেন, ‘ব্রিজ ভাঙার ঘটনা সদ্য ঘটেছে, আর লোকজন এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করছে, তাই কিছু মানুষ ভয় পাচ্ছে...কিন্তু আর কোনো অঘটন না ঘটলে, কিছুদিনের মধ্যে এই ভয় অনেকটাই কেটে যাবে।’



মন্তব্য