kalerkantho


বিদ্রোহীদের মাথার দাম ঘোষণা

‘সেনাদের যুদ্ধাপরাধে উসকে দিচ্ছেন দুতার্তে’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



সামরিক বাহিনীকে যুদ্ধাপরাধে উসকে দিচ্ছেন ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে। এ অভিযোগ তুলেছে বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন ও দেশটিতে সক্রিয় বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলো। তাদের দাবি, কমিউনিস্ট বিদ্রোহীদের হত্যার জন্য দুতার্তের পুরস্কার ঘোষণায় সামরিক বাহিনী মারাত্মক যুদ্ধাপরাধের দিকে ঝুঁকতে পারে। বৃহস্পতিবার সংবাদমাধ্যমের কাছে পাঠানো বিবৃতিতে তারা এ কথা জানায়।

চলতি মাসের শুরুর দিকে দক্ষিণের মিন্দানাও অঞ্চলে হামলা চালায় কমিউনিস্ট বিদ্রোহী গোষ্ঠী নিউ পিপলস আর্মি। এতে আদিবাসী মিলিশিয়া বাহিনীর এক নেতাসহ তাঁর ছেলে নিহত হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত সপ্তাহে দুতার্তে বলেন, তিনি আদিবাসী লোকজনকে প্রশিক্ষণ দিয়ে আধাসামরিক বাহিনীতে যোগ দেওয়াবেন। কমিউনিস্ট বিদ্রোহীকে হত্যা করতে পারলে প্রতিটি কমিউনিস্টের জন্য তাদের ২০ হাজার পেসো (৩৮৪ মার্কিন ডলার) পুরস্কার দেওয়া হবে। দুতার্তে বলেন, ‘তোমাদের অর্থের প্রয়োজন? আমি তা দেব। আমি প্রতিটি মাথার জন্য ২০ হাজার পেসো পর্যন্ত দিতে রাজি আছি।’

মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইট ওয়াচের ফিলিপাইন প্রতিনিধি কালোর্স এইচ কোন্দে বলেন, দুতার্তের এ বক্তব্য সশস্ত্র সংঘাতের ক্ষেত্রে রীতি লঙ্ঘনে উসকানি দেয়। তিনি বলেন, ‘দুতার্তের ঘোষণা সরকার নিয়ন্ত্রিত বাহিনীগুলোকে শত্রুদের পরাজিত করতে যেকোনো পন্থা অবলম্বনে আরো উৎসাহ জোগাবে। বিশেষ করে তারা তাৎক্ষণিক হত্যাকাণ্ডে মেতে উঠবে।’ অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের র‌্যাচেল চোয়া-হাওয়ার্ড বলেন, দুতার্তের নতুন এই কৌশল ‘উভয় পক্ষকেই ভয়ংকর ও পাশবিক করে তুলবে।’ বরং ‘এটি অপরাধীকে বন্দি করার বদলে হত্যা করতে উৎসাহ জোগাবে। যেটি মানুষের বেঁচে থাকার অধিকারের সম্পূর্ণ লঙ্ঘন।’ সূত্র : আলজাজিরা।



মন্তব্য