kalerkantho


আবারও কয়েক ঘণ্টার জন্য বন্ধ যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি কার্যক্রম

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



বাজেট বিতর্কে যুক্তরাষ্ট্রে তিন সপ্তাহের মাথায় আবার সরকারি কার্যক্রম বন্ধ হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। তবে এবার ডেমোক্র্যাটদের বিরোধিতায় নয়, খোদ এক রিপাবলিকান কংগ্রেস সদস্যের বিরোধিতায় এমনটা ঘটেছে। সরকারি কার্যক্রমে এ অচলাবস্থা অবশ্য এবার মাত্র কয়েক ঘণ্টা স্থায়ী হয়। গতকাল শুক্রবার সরকারি কর্মীরা যার যার কর্মস্থলে পৌঁছানোর বেশ আগেই এ অচলাবস্থার অবসান ঘটে।

বৃহস্পতিবার দিবাগত শেষ রাতে যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের সিনেটে ও পরে শুক্রবার ভোরে হাউস রিপ্রেজেন্টেটিভসে দুই বছর মেয়াদি বাজেট চুক্তিসংক্রান্ত বিলটি পাস হয়ে যায়।

৩০ হাজার কোটি ডলারের দুই বছর মেয়াদি এ বাজেট নিয়ে কয়েক মাস ধরে কংগ্রেসে আলোচনা চলছে। প্রস্তাবিত ওই বাজেটের আওতায় সামরিক খাতের জন্য ১৬ হাজার কোটি ডলার, অপ্রতিরক্ষা খাতে ১২ হাজার ৮০০ কোটি ডলার এবং টেক্সাস, ফ্লোরিডা ও পুয়ের্তো রিকোয় দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ত্রাণ বাবদ আট হাজার কোটি ডলার রাখা হয়। গত বৃহস্পতিবার মধ্যরাতের আগেই এ বাজেট পাস হওয়ার বাধ্যবাধকতা ছিল। তা না হলে সংশ্লিষ্ট খাতের অনেক কার্যক্রম বন্ধ রাখার মতো পরিস্থিতি তৈরি হওয়ার আশঙ্কা ছিল।

সব কিছু চূড়ান্ত হওয়ার পর বুধবার বিলটি কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেটে তোলা হয়; কিন্তু রিপাবলিকান সিনেটর র‌্যান্ড পল এ বিলে আপত্তি তোলায় নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সেটা পাস করানো যায়নি। ফলে বৃহস্পতিবার মধ্যরাতের পর থেকে সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্মসূচিতে অচলাবস্থা দেখা দেয়; কিন্তু কয়েক ঘণ্টার মাথায় ৭১-২৮ ভোটে সিনেটে সেটি পাস হয়ে যায়। পরে শুক্রবার ভোরে কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভে বিলটি পাস হয় ২৪০-১৮৬ ভোটে।

ক্ষমতাসীন রিপাবলিকানদের ৬৭ সদস্য নিম্নকক্ষের ভোটাভুটিতে এ বিলের বিরোধিতা করে। তবে ৭৩ জন ডেমোক্র্যাট সদস্যের ভোট পাওয়ায় বিলটি পাস করাতে সরকারকে বেগ পেতে হয়নি। এখানে বিলটি পাস হওয়ার পর তা হোয়াইট হাউসে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। কয়েক ঘণ্টার মধ্যে ওই বিলে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্বাক্ষর করাটা ছিল শুধু আনুষ্ঠানিকতা। ফলে মধ্যরাতে কয়েক ঘণ্টার জন্য সরকারি কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যাওয়ার প্রভাব কর্মীদের ওপর খুব একটা পড়বে না বলে আশা করছেন পর্যবেক্ষকরা।

বিলটিতে স্বাক্ষরের পর ট্রাম্প টুইট করেন, ‘এইমাত্র বিলে স্বাক্ষর করলাম। আমাদের সেনাবাহিনী এবার আগের যেকোনো সময়ের চেয়ে শক্তিশালী হবে... এর আরেক অর্থ হল চাকরি, চাকরি, চাকরি।’

তিন সপ্তাহ আগে খণ্ডকালীন বাজেট পাস নিয়ে সৃষ্ট অচলাবস্থায় তিন দিন সরকারি সেবা বন্ধ রাখতে বাধ্য হয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসন। ওই বাজেটে অভিবাসীদের জন্য বরাদ্দ না থাকায় ডেমোক্র্যাটদের বিরোধিতার জেরে এ ধরনের ঘটনা ঘটে। গতকাল পাস হওয়া বাজেটেও অভিবাসীদের জন্য কিছু নেই। তবে বিষয়টি নিয়ে আগামী সোমবার কংগ্রেসে ভোটাভুটির ঘোষণা দিয়েছেন সিনেটে সংখ্যাগরিষ্ঠ রিপাবলিকানদের নেতা মিচ ম্যাককনেল। সূত্র : সিএনএন।


মন্তব্য