kalerkantho


ইরমার ছোবলে তছনছ ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



আটলান্টিক মহাসাগর থেকে সৃষ্ট গত এক শতাব্দীর মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ইরমা ক্যারিবীয় অঞ্চলের ছোট কয়েকটি দ্বীপকে তছনছ করে ধ্বংসস্তূপে পরিণত করেছে। এই ঝড়ের আঘাতে গতকাল পর্যন্ত ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। ওই সময় এ ঝড়ের বেগ ছিল ঘণ্টায় প্রায় ৩০০ কিলোমিটার। যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা উপকূলে আগামীকাল শনিবার এই ঝড়ের আঘাত হানার আশঙ্কা থাকলেও তখন এর বেগ অনেকটাই কমে এটি ক্যাটাগরি চার মাত্রার ঝড়ে পরিণত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ক্যারিবীয় দ্বীপ সেন্ট মার্টিনের ওপর দিয়ে ঝড়ের সবচেয়ে বড় ঝাপটা বয়ে যায়। পর্যটকদের জন্য আকর্ষণীয় দ্বীপটি ফ্রান্স ও নেদারল্যান্ডসের মধ্যে বিভক্ত। ফ্রান্স অংশের উদ্ধারকর্মীরা জানান, ঝড়ে মৃত্যু হয়েছে আটজনের, আহত হয়েছে ২১ জন। দ্বীপের বিদ্যুৎ সংযোগও বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। নেদারল্যান্ডসের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রাট জানান, ঝড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বিমানবন্দর ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় দ্বীপে পৌঁছনো যাচ্ছে না। তবে প্রাণহানির কোনো খবর পাওয়া যায়নি। কিছু স্থানে ঝড়ের প্রভাবে বড় ধরনের বন্যাও দেখা দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টারের (এনএইচসি) স্কেলে এটিই সবচেয়ে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়। দুই সপ্তাহ আগে যুক্তরাষ্ট্রের মূল ভূখণ্ডে আঘাত হানা ঘূর্ণিঝড় হার্ভির চেয়েও এটি বেশি ধ্বংসযজ্ঞের সক্ষমতা রাখে। ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জ পেরিয়ে ইরমা শনিবারের মধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রের মূল ভূখণ্ডে আঘাত হানবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আগে থেকেই ভয়াবহ বিপর্যয়ের ইঙ্গিত দেওয়া ইরমা বড় ধরনের ধ্বংসলীলা চালিয়েছে অ্যান্টিগা ও বারবুডাতেও। এক হাজার ৮০০ বাসিন্দার বারবুডা দ্বীপের ৯০ শতাংশ ‘মাটির সঙ্গে মিশে গেছে’ বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী গেস্টন ব্রাউন। ঝড়ে একজনের মৃত্যুর খবরও নিশ্চিত করেছেন ব্রাউন।

ক্যারিবীয় অঞ্চলে ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৩০০ কিলোমিটার বেগে আছড়ে পড়া ঝড়টি আজ বা আগামীকালের মধ্যে ফ্লোরিডায় আঘাত হানতে পারে বলে এনএইচসি আশঙ্কা করছে। ঝড়টির গতিবিধি সম্বন্ধে নিশ্চিত হওয়া না গেলেও যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত হানার সময় এটি অন্তত ক্যাটাগরি চারের শক্তি ধারণ করবে বলে আশঙ্কা রয়েছে। বুধবার দিনের শেষে ইরমা পুয়ের্তো রিকোর উত্তর পাশে ছোবল মারে, দ্বীপের রাজধানী সান হুয়ানে ভারি বৃষ্টিপাতের পাশাপাশি বাতাসে রাস্তার ধারের গাছগুলোকে উপড়ে যেতে দেখা গেছে। দ্বীপটির অন্তত অর্ধেক ঘরবাড়ি ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান অন্ধকারে ডুবে আছে বলে বাসিন্দাদের দেওয়া টুইট বার্তা থেকে জানা গেছে। সূত্র : এএফপি, বিবিসি, রয়টার্স।



মন্তব্য