kalerkantho


প্রাচীন মিথ

যেভাবে সৃষ্টি হলো বিখ্যাত শিল্পকর্ম 'কুয়ো থেকে সত্য বেরিয়ে আসছে'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৮:৩১



যেভাবে সৃষ্টি হলো বিখ্যাত শিল্পকর্ম 'কুয়ো থেকে সত্য বেরিয়ে আসছে'

লিওন জেরোমির বিখ্যাত শিল্পকর্ম 'দ্য ট্রুথ কামিং আউট অব দ্য ওয়েল'। ছবি : ইন্টারনেট

পৃথিবী বিখ্যাত একটি শিল্পকর্ম 'কুয়ো থেকে সত্য বেরিয়ে আসছে'। এই শিল্পকর্মের পেছনেও রয়েছে একটি গল্প। যা ১৯ শতকের লোককাহিনী  থেকে নেওয়া। এই মিথ অনুসারে জানা যায়, কীভাবে পৃথিবী থেকে সত্য হারিয়ে গিয়েছিল। একটি নগ্ন শিল্পকর্মে কীভাবে ফুটে উঠেছে সত্য হারিয়ে যাওয়ার গল্প? এবার জেনে নেওয়া যাক:

একদিন 'সত্য' ও 'মিথ্যার' সাক্ষাৎ হয়। মিথ্যা সত্যকে বলে ' আজকের দিনটি কত চমৎকার'। সত্য মিথ্যার কথা বিশ্বাস করতে পারে না। তবু সংশয় নিয়ে আকাশের দিকে তাকায়। সত্য দেখে দিনটি আসলেই চমৎকার। সত্য দীর্ঘশ্বাস ফেলে বলে তা ঠিক, দিনটি সুন্দর।তারা একত্রে অনেকক্ষণ সময় কাটায়। অবশেষে তারা একটি কুয়োর কাছে যায়। 

মিথ্যা সত্যকে বলে ' বেশ পরিস্কার, স্বচ্ছ, সুপেয় পানি '। এবারও সত্য সন্দেহ নিয়ে পানির স্বাদ নিয়ে দেখে সুমিস্ট ও পরিস্কার পানি।তারা কাপড় চোপর খুলে নগ্ন হয়ে গোসল করতে নামল। হঠাৎ করে মিথ্যা পানি থেকে উঠে এল এবং সত্যের কাপড় চোপর পরিধান করে দৌড়ে পালিয়ে গেল।

রাগান্বিত সত্য কুয়ো থেকে উঠে মিথ্যার পিছনে দৌড়াতে লাগল তার কাপড় চোপড় ফিরে পাওয়ার জন্য। পৃথিবী 'সত্যের' এই 'নগ্ন ' অবস্থা দেখে ঘৃণা ও ক্রোধে এর থেকে মুখ ফিরিয়ে নিল। বেচারা সত্য কুয়োতে ফিরে এল এবং তীব্র লজ্জায় এর ভিতর চিরদিনের জন্য লুকিয়ে গেল। তখন থেকে 'মিথ্যা ' সত্যের বস্ত্র পরে পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড়ল।

এভাবে মিথ্যা সমাজের প্রয়োজন মিটিয়ে চলছে, যেহেতু পৃথিবী কিছুতেই 'নগ্ন সত্যকে' মেনে নিতে রাজি নয়। এই মিথ নিয়েই ১৮৯৬ সালে লিওন জেরোমি সৃষ্টি করেন পৃথিবী বিখ্যাত শিল্পকর্ম 'কুয়ো থেকে সত্য বেরিয়ে আসছে'।



মন্তব্য