kalerkantho


নোয়াখালীতে তিন মাসব্যাপী আবৃত্তি কর্মশালা

নিজস্ব প্রতিবেদক, নোয়াখালী    

২৫ নভেম্বর, ২০১৭ ২১:১৮



নোয়াখালীতে তিন মাসব্যাপী আবৃত্তি কর্মশালা

'বাজুক প্রাণে প্রাণে সত্য সুন্দরের ধ্বনি-প্রতিধ্বনি'- এ স্লোগানকে সামনে রেখে নোয়াখালী আবৃত্তি একাডেমি তিন মাসব্যাপী আবৃত্তি কর্মশালার চতুর্থ আবর্তন জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে শুরু হয়েছে।

আজ শনিবার কর্মশালার দ্বিতীয় দিনে অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন নোয়াখালী জেলা শিল্পকলা একাডেমির এডহক কমিটির কার্যকরী সদস্য সাংবাদিক সামসুল হাসান মীরন।

নোয়াখালী আবৃত্তি একাডেমির সভাপতি অ্যাডভোকেট এমদাদ হোসেন কৈশোরের সভাপতিত্বে কর্মশালার দ্বিতীয় দিনে বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি ও ঢাকার কণ্ঠশীলন'র জ্যেষ্ঠ প্রশিক্ষক গোলাম সারওয়ার প্রশিক্ষণ প্রদান করেন। অনুষ্ঠানে নোয়াখালী জেলা শিল্পকলা একাডেমির কালচারার অফিসার ফয়েজ উল্লাহ, সাংস্কৃতিক সংগঠক ও আবৃত্তি প্রশিক্ষক শামস আলী ডিউ বক্তব্য দেন।

এর আগে গতকাল শুক্রবার সকালে কর্মশালা উদ্বোধন করেন নোয়াখালীর পুলিশ সুপার ও নোয়াখালী আবৃত্তি একাডেমির প্রধান উপদেষ্টা মো. ইলিয়াছ শরীফ। উদ্বোধনী দিনে প্রশিক্ষণ প্রদান করেন চ্যানেল আই'র বার্তা সম্পাদক মীর মাশরুর উজ্জামান রনি।

নোয়াখালী আবৃত্তি একাডেমির সভাপতি আ্যডভোকেট এমদাদ হোসেন কৈশোর জানান, এবারের কর্মশালায় মোট ৬০ জন  প্রশিক্ষণে অংশ নিচ্ছেন। প্রশিক্ষণে প্রমিত উচ্চারণ. স্বর-সাধন. ভাব-রস-ছন্দ ও উপাস্থপনা বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। তিন মাসব্যাপী এ প্রশিক্ষণে জাতীয় পর্যায়ের প্রশিক্ষকরা প্রশিক্ষণ প্রদান করবেন।

কর্মশালায় যারা প্রশিক্ষণ দেবেন তারা হলে রূপা চক্রবর্তী, বেলায়েত হোসেন, মীর বরকত, ইকবাল খোরশেদ, কাজী মাহতাব সুমন প্রমুখ। কৈশোর আরো জানান, ইতিমধ্যে এখান থেকে আবৃত্তিতে প্রশিক্ষণ নিয়ে জাতীয় পর্যায়ে নোয়াখালীর অনেক তরুণ-তরুণী পুরস্কার পেয়েছেন এবং তাদের মেধার বিকাশ ঘটিয়েছেন।

আবৃত্তি প্রশিক্ষণের মধ্য দিয়ে আমরা আমাদের প্রিয় মাতৃভাষার শুদ্ধ উচ্চারণ করতে পারি।


মন্তব্য