kalerkantho

গফরগাঁওয়ে বিদ্যালয়ের গাছ কেটে নেওয়ার অভিযোগ

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

১৬ এপ্রিল, ২০১৯ ১৬:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গফরগাঁওয়ে বিদ্যালয়ের গাছ কেটে নেওয়ার অভিযোগ

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে পরিচালনা কমিটির নিষেধ অমান্য করে বিদ্যালয়ের একটি বড় রেইনট্রি কড়ই গাছ কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে আলামিন নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার চরমছলন্দ উত্তর নয়াপাড়া শরীফ উদ্দিন ফরাজী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। এ ঘটনায় পরিচালনা কমিটি ও অভিভাবকদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

সরেজমিন গিয়ে জানা যায়, উপজেলার চরমছলন্দ উত্তর নয়াপাড়া গ্রামে অবস্থিত ২১ নম্বর শরীফ উদ্দিন ফরাজী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আনুমানিক ২০ হাজার টাকা মূল্যের একটি রেইনট্রি কড়ই গাছ উত্তর নয়াপাড়া গ্রামের হাফিজ উদ্দিন ফরাজীর ছেলে আল আমিন স্থানীয় কাঠ ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করে দেন। রবিবার কাঠ ব্যবসায়ীর লোকজন গাছটি কাটতে এলে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির পক্ষ থেকে নিষেধ করা হয়। তা সত্ত্বেও গাছটি কেটে ফেলা হয়। অভিযুক্ত আলামিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি গাছ কাটার কথা স্বীকার করেন।

ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আফরোজা সুলতানা বলেন, কমিটির লোকজন গাছ কাটতে নিষেধ করেছিলেন। বিষয়টি সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নাজমুল হুদাকে জানানোর পর তিনি বিদ্যালয়ে আসবেন বলেছেন। তবে সংশ্লিষ্ট ক্লাস্টারের দায়িত্বপ্রাপ্ত সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নাজমুল হুদার মোবাইলে আটবার কল দিলেও তিনি রিসিভ না করায় এ ব্যাপারে তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। 

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আজিজুল হক ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, গাছটি বিদ্যালয়ের সম্পদ। কাটার সময় আমরা বার বার নিষেধ করেছি। কিন্তু নিষেধ না শুনে গাছটি কেটে নিয়েছে। উপজেলা ভারপ্রাপ্ত প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা হাফিজুল ইসলাম বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের গাছ কাটার অধিকার কারো নেই। পদক্ষেপ নেওয়ার ব্যাপারে নির্বাহী কর্মকতার নির্দেশ পেয়েছি। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মাহবুব উর রহমান বলেন, এ ব্যাপারে ভারপ্রাপ্ত প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছি।

মন্তব্য