kalerkantho

রাজাপুরে হত্যা মামলার আসামিকে কুপিয়ে হত্যা

রাজাপুর (ঝালকাঠি) প্রতিনিধি   

২৬ মার্চ, ২০১৯ ১৫:৫০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজাপুরে হত্যা মামলার আসামিকে কুপিয়ে হত্যা

ঝালকাঠির রাজাপুরে মেহেদী হাসান শুভ (২২) নামে এক যুবককে কুপিয়ে হাত-পা বিচ্ছিন্ন করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। নিহত শুভ উপজেলার বড়ইয়া গ্রামের আব্দুল্লাহ আল মাহাবুবের ছেলে। তিনি কলেজছাত্র সোহেল রানা ও মাদরাসাছাত্র শুক্কুর হাওলাদার হত্যা মামলার আসামি।

সোমবার রাত ৩টার দিকে উপজেলা বড়ইয়া ইউনিয়নের কলাকোপা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, শুভর বিরুদ্ধে দুটি হত্যা মামলা রয়েছে। এসব মামলায় দীর্ঘদিন জেলে থাকার পর তিনি জামিনে মুক্তি পান। মৃত্যুর আগে শুভ পুলিশের কাছে হামলাকারীদের বিষয়ে তথ্য দিয়ে গেছেন।

নিহতে বাবা মাহাবুব জানায়, সোমবার রাত ৮টার দিকে পিকনিক করার কথা বলে স্থানীয় নেয়ামত, বেলাল ও হেলালসহ কয়েক যুবক শুভকে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যায়। রাত সাড়ে ১০টার দিকে শুভর সাথে তার মা নাসিমার শেষ কথা হয়। এরপর আজ সকালে কলাকোপা গ্রামের এক মহিলা মোবাইল ফোনে জানায়, গ্রামের একটি মাঠে গুরুতর আহতাবস্থায় শুভ পড়ে আছে। খবর পেয়ে শুভকে উদ্ধার করে বরিশাল নেওয়ার পথে ঝালকাঠির গাবখান সেতু এলাকায় শুভর মৃত্যু হয়।

স্থানীয় একটি সূত্র জানায়, নিহত শুভ মাদকাসক্ত ছিল। সে প্রায় রাতেই গ্রামের বিভিন্ন বাড়িতে ইয়াবা সেবনের জন্য যেত। গভীররাতে কেউ দরজা খুলতে না চাইলে তাদের দেখে নেওয়ার হুমকী দিত শুভ। তার অত্যাচারে গ্রামবাসী অতিষ্ট ছিল।

অপর একটি সূত্র জানায়, শুভ ও তার বন্ধুদের বড়ইয়া গ্রামে পিকনিক করার কথা থাকলেও তারা রাত ৩টার দিকে পার্শ্ববর্তী কলাকোপা গ্রামে যায়। সেখানে আল আমীন নামে এক যুবকের বাড়িতে হানা দেয় তারা। আল আমীনের সাথে শুভর পূর্ব শত্রুতা ছিল। এ সময় আল আমীনের বাড়ির লোকজন ডাকাত বলে চিৎকার করলে পাশ্ববর্তী একটি মসজিদ থেকে মাইকে ডাকাতের বিষয়ে সবাইকে সতর্ক করা হয়। এরপর কে বা কারা শুভকে কুপিয়ে হাত-পা বিচ্ছিন্ন করে দিয়ে মাঠে ফেলে রাখে।

সহকারী পুলিশ সুপার (রাজাপুর-কাঁঠালিয়া) সার্কেল মো. মোজাম্মেল হোসেন রেজা বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্থানীয় ইউপি সদস্য সৈয়দ আলীকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

রাজাপুর থানার ওসি মো. জাহিদ হোসেন বলেন, ঘটনার সাথে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশের একধিক দল কাজ করছে। আশাকরি দ্রুতই হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার করা যাবে।

মন্তব্য