kalerkantho

ভোলায় তোফায়েল আহমেদ

খালেদা জিয়া গণহত্যার কথা স্বীকার করেন না

ভোলা প্রতিনিধি   

২৫ মার্চ, ২০১৯ ১৯:৩২ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



খালেদা জিয়া গণহত্যার কথা স্বীকার করেন না

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের মেম্বার ও ভোলা সদর আসনের সংসদ সদস্য তোফায়েল আহমেদ এমপি বলেছেন, ২৫শে মার্চ যখন প্রথম গুলির শব্দ হয় তখন প্রথমে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর কণ্ঠ বেতারে ভেসে আসে। তিনি উচ্চারণ করলেন আজ থেকে আমার বাংলাদেশ স্বাধীন। একজন বাঙালি বেঁচে থাকা পর্যন্ত যুদ্ধ চালিয়ে যেতে হবে। এটাই ছিলো বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতার ঘোষণা। আজ সেই ২৫শে মার্চ আমরা গণহত্যা দিবস হিসেবে পালন করি।

তিনি বলেন, পার্লামেন্টে ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির একটি সভা শেষে আমিই প্রথম ২৫শে মার্চকে গণহত্যা দিবস হিসেবে ঘোষণার দাবি জানিয়েছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এ প্রস্তাবকে সমর্থন দিয়ে আজ তা গণহত্যা দিবস হিসেবে পালন করে চলেছি। সারা বিশ্বের মানুষ স্বীকার করেছিলো ৩০ লক্ষ লোক শহীদ হয়েছে। কিন্তু বেগম খালেদা জিয়া বলেছে ৩০ লক্ষ লোক শহীদ হয়েছে তার প্রমাণ নেই।

আজ সোমবার সকালে ভোলা সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত পশ্চিম ইলিশা ও উত্তর দিঘলদি ইউনিয়নের তৃণমূল নেতাকর্মীদের সাথে এক নির্বাচন পরবর্তী মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

এ সভার মধ্য দিয়ে ভোলা সদর উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের প্রায় ১২ হাজার নেতাকর্মীদের সাথে পাঁচ দিনব্যাপী নির্বাচন পরবর্তী মূল্যায়ন সভা শেষ হলো। এ সময় বিভিন্ন ইউনিয়নের আগামী দিনের উন্নয়নের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

পাকিস্তানি একজন লেখকের একটি বইয়ের উদ্ধৃতি দিয়ে সাবেক শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রী আরো বলেন, সেখানে ৭১ সালের ২৫ মার্চ মাসের একটি ছবিতে ক্যাপসন দিয়ে বলা হয়েছে আওয়ামী সন্ত্রাসীরা স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় এদেশের মানুষকে হত্যা করেছে। তার নাম জোনায়েদ আহমেদ। বেগম খালেদা জিয়া এ পাকিস্তানের পক্ষ অবলম্বন করেছেন।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মোশারেফ হোসেন এর সভাপতিত্বে এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল মমিন টুলু, ভোলা জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক আরজু, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. ইউনূছ, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুর ইসলাম, ভোলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এম হাবিবুর রহামানসহ ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ।

মন্তব্য