kalerkantho

শ্বশুরবাড়ি থেকে সিকৃবি শিক্ষার্থীর ঘাতক হেলপার আটক

ছাতক (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২৫ মার্চ, ২০১৯ ০০:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শ্বশুরবাড়ি থেকে সিকৃবি শিক্ষার্থীর ঘাতক হেলপার আটক

হেলপার মাসুক আলী

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ওয়াসিম তাহসিনকে যাত্রাবাহী উদার পরিবহন থেকে ধাক্কা দিয়ে হত্যার অভিযোগে বাস হেলপার মাসুক আলী (৩৮)কে আটক করেছে সুনামগঞ্জ পুলিশ। সে সুনামগঞ্জ পৌর শহরের তেঘরিয়া এলাকার মৃত দৌলত আলীর ছেলে।

শনিবার রাতে মোবাইল ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে ছাতক উপজেলার সিংচাপইড় ইউনিয়নের সিংচাপইড় গ্রামে তার শ্বশুরবাড়ি থেকে আটক করা হয়।

পুলিশ সূত্র জানায়, গতকাল শনিবার সকালে ময়মনসিংহের সরিষাবাড়ী থেকে সিলেটগামী যাত্রীবাহী বাস উদার পবিরহন যোগে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ থেকে শেরপুরে আসার সময় ভাড়ার টাকা নিয়ে হেলপার ও চালকের সঙ্গে কথাকাটি হয়। এক পর্যায়ে বাস চালকের নির্দেশে হেলপার শিক্ষার্থী ওয়াসিমসহ দু'জনকে ধাক্কা দিয়ে রাস্তায় ফেলে দেয়।

এ সময় ওয়াসিম ও অন্য শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়। গুরুতর আহত শিক্ষার্থীদেরকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর বিকাল সাড়ে ৪টায় শিক্ষার্থী ওয়াসিম মারা যায়।

এ ঘটনায় সিলেটসহ সারাদেশে প্রতিবাদ ও বিক্ষোভের ঝড় উঠে। বিভিন্ন স্থানে বাসে আগুন দিয়েছে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সুনামগঞ্জ পুলিশ সুপার বরকতুল্লাহ খানের নির্দেশে রাত দেড়টায় হেলপার মাসুক আলীকে ছাতক উপজেলার সিংচাপইড় থেকে আটক করতে সক্ষম হয় পুলিশ।

তার আগে বাসের চালককে আটক করা হয়। এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান রাত সাড়ে ৩টায় তাৎক্ষণিকভাবে প্রেস ব্রিফিংকালে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঘাতক হেলপার মাসুক আলীকে শ্বাসরুদ্ধকার দেড় ঘণ্টা অভিযানের মাধ্যমে তার শ্বশুরবাড়ি সিংচাপইড়র গ্রাম থেকে আটক করতে সক্ষম হয়।

পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে বাসের সুপারভাইজারকে ঘটনার জন্য দায়ী করে।

মন্তব্য