kalerkantho

‘ভোট ডাকাতির’ উদ্দেশে রাস্তা কেটে ভোট কেন্দ্র বিচ্ছিন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার   

২৩ মার্চ, ২০১৯ ২৩:৩০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘ভোট ডাকাতির’ উদ্দেশে রাস্তা কেটে ভোট কেন্দ্র বিচ্ছিন্ন

‘ভোট ডাকাতির’ উদ্দেশে কক্সবাজারের উপকূলীয় পেকুয়া উপজেলার মগনামা ইউনিয়নে রাস্তা কেটে একটি ভোট কেন্দ্র বিচ্ছিন্ন করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ভোট কেন্দ্রটিতে তিন হাজারের বেশি ভোটার রয়েছে। তদুপরি জাল ভোট দেওয়ার জন্য রবিবার সন্ধ্যার পর থেকেই মগনামা ইউনিয়ন পরিষদ ভোট কেন্দ্রটির পাশে বহুসংখ্যক বোরকা পরিহিত নারী নিয়ে রাখা হয়েছে বলে জানা গেছে।

মগনামা ইউনিয়নটি নিয়ে পেকুয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে এমনিতেই উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার শেষ নেই। রবিবার সন্ধ্যার পরই খবর এসেছে ৯ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ মগনামা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে যাতায়াতের রাস্তাটি কেটে দেওয়া হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে- জামায়াত-শিবির ও সর্বশেষ বিএনপি থেকে সাম্প্রতিক সময়ে আওয়ামী লীগে যোগ দেওয়া মগনামা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শরাফত উল্লাহ ওয়াসিমের যোগসাজসে নির্বাচনের আগে রাস্তাটি কেটে ফেলা হয়েছে।

ভোট কেন্দ্রটির পাশের রাস্তাটির একটি ব্রিজ অনেক দিনের পুরানো হওয়ায় এটি নতুন করে নির্মাণের টেন্ডার দেওয়ার তথ্য দিয়েছেন মগনামার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার শাহেদ। মেম্বার শাহেদের সঙ্গে গতরাতে যোগাযোগ করা এল তিনি অভিযোগের বিষয়ে জানান- ‘রাস্তাটি কেটে ফেলা হয়েছে এটা সত্যি। আর এতে করে ভোট কেন্দ্রটি এখন ঝুঁকিতে পড়েছে। কেননা আইন প্রয়োগকারী সংস্থার যানবাহন কেন্দ্রটিতে যেতে পারবে না। 

কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আবু হেনা মোস্তফা কামাল চৌধুরী অভিযোগ করেছেন, দক্ষিণ মগনামা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের ‘ভোট ডাকাতির’ উদ্দেশে রাস্তাটি কেটে দেওয়া হয়েছে। তিনি জানান, ভোট ডাকাতির উদ্দেশে রাস্তাটি কেটে কেন্দ্র্রটিকে বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। তবে ইউপি মেম্বার শাহেদ বলেছেন, নতুন ব্রিজ করার জন্য নিয়োজিত ঠিকাদারই রাস্তাটি কেটে দিয়েছে। এতে মেম্বার-চেয়ারম্যানের কোনো হাত নেই বলে জানান তিনি।

এদিকে মগনামা হাইস্কুল ভোট কেন্দ্রটি সরিয়ে মগনামা ইউনিয়ন পরিষদ ভবনে কেন্দ্র করা হয়েছে। সেই কেন্দ্রটির পাশের কয়েকটি ঘরে অনেক নারীকে নিয়ে রাখা হয়েছে। এদেরকে জাল ভোট দেওয়ার কাজে লাগানোর আশংকা করা হচ্ছে।

মন্তব্য