kalerkantho

অভিযুক্ত হত্যাকারীর মা আটক

সাভারে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার (ঢাকা)    

২২ মার্চ, ২০১৯ ১৭:০৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাভারে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা

সাভারে এক ব্যবসায়ীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে এক যুবকের বিরুদ্ধে। নিহতের নাম শফিকুল বারি চৌধুরী বকুল (৫২)। তিনি ঠিকাদারি ব্যবসার সঙ্গে জড়িত ছিলেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) রাতে সাভার পৌর এলাকার উত্তর তালবাগ মহল্লায় জনৈক সাইদুর রহমানের ভাড়া দেওয়া বাড়িতে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত হত্যাকারীর নাম মাসুম (২০)। ঘটনার পর থেকে তিনি পলাতক থাকলেও সাভার থানা পুলিশ মাসুমের মা মোরশেদা বেগমকে (৪০) আটক করেছে।

নিহত বকুল টাঙ্গাইলের নাগরপুর থানার আন্দিবাড়ি গ্রামের আব্দুল বারীর ছেলে। তিনি সাভার পৌর এলাকার ডগরমোড়া মহল্লায় নিজ বাড়িতে বসবাস করতেন এবং ঠিকাদারি ব্যবসার সঙ্গে জড়িত ছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আটক মোরশেদা বেগমের বাড়ি রংপুর জেলার মিঠাপুকুর থানার করাগাছ পূর্বপাড়া গ্রামে। তিনি ছেলে মাসুমকে নিয়ে তালবাগ এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন।

স্থানীয়রা জানায়, অজ্ঞাত কারণে সম্প্রতি মোরশেদার সঙ্গে স্বামী রাশেদ মিয়া বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। এরপর থেকে মোরশেদার বাসায় মাঝেমধ্যেই আসা-যাওয়া করতেন শফিকুল বারি চৌধুরী বকুল। বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে বকুল মোরশেদার বাসায় আসেন। এরপর চিৎকার শুনতে পেয়ে প্রতিবেশীরা এগিয়ে গিয়ে বকুলকে মাথায়, ঘাড় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাত নিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখতে পান। ঘটনাস্থলেই মারা যান বকুল।

খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার এবং মোরশেদাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। ঘটনার পর থেকে মোরশেদার ছেলে মাসুম পলাতক।

প্রতিবেশীদের বরাত দিয়ে সাভার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এএফএম সায়েদ বলেন, মোরশেদার সঙ্গে শফিকুল বারীরর কোনো ধরনের অনৈতিক সম্পর্ক ছিল কি-না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য তা রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পর থেকে পলাতক মাসুমকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চলছে। এ ঘটনায় মাসুমের মা মোরশেদাকে আটক করা হয়েছে। মাসুমকে আটকের পরই জিজ্ঞাসাবাদে জানা যাবে এ হতাকাণ্ডের মূল রহস্য।

এ ব্যাপারে সাভার মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

মন্তব্য