kalerkantho

স্বতন্ত্র প্রার্থীর হামলায় আ. লীগের তিন কর্মী হাসপাতালে

বরগুনা প্রতিনিধি   

১৯ মার্চ, ২০১৯ ২৩:৪৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্বতন্ত্র প্রার্থীর হামলায় আ. লীগের তিন কর্মী হাসপাতালে

ছবি: কালের কণ্ঠ

বরগুনা সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ও তার কর্মীদের হামলায় আওয়ামী লীগ প্রার্থীর তিন কর্মী আহত হওয়া অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার রাতে বরগুনা প্রেস ক্লাবে এসে এ অভিযোগ করেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট শাহ্ মো. ওয়ালিউল্লাহ অলি।

মঙ্গলবার রাতে বরগুনা সদর উপজেলার বদরখালী ইউনিয়নের ফুলঝুড়ি বাজারে তার নির্বাচনী অফিসে এ হামলার ঘটনা ঘটে বলে জানান তিনি। আহতদের বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়ে।

আহতরা হলেন- ফুলঝুড়ি গ্রামের নেছার উদ্দিন খানের ছেলে রিয়াদ মাহমুদ (২৯), একই গ্রামের সোবহান হাওলাদারের ছেলে সুমন হাওলাদার (২৮), এবং ছালাম খানের ছেলে বশির খান (২৯)।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট শাহ্ মো. ওয়ালিউল্লাহ অলি বলেন, ‌'ফুলঝুড়ি বাজারে আমার নির্বাচনী অফিসে আমার কয়েকজন কর্মী বসে ছিলেন। আমার নির্বাচনী অফিসের অদূরে ছিলো আমার প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মনিরুল ইসলাম মনিরের নির্বাচনী পথসভা।'

তিনি আরো বলেন, ‌'পথসভা ও নির্বাচনী প্রচারণা উপলক্ষে মনির ফুলঝুড়ি বাজারে এসে তার কর্মীদের নিয়ে আমার নির্বাচনী অফিস ও অফিসে অবস্থানরত নেতা-কর্মীদের ওপর হামলা চালান এবং অফিসের আসবাপত্র ভাঙচুর করেন। তার হামলায় আমার তিন নেতা-কর্মী গুরুতর আহত হয়। এতে আমার নির্বাচনী অফিস তছনছ হয়ে যায়।'

এর আগে গতকাল সোমবার পরীরখাল বাজারে তার নির্বাচনী অফিসে হামলা চালিয়ে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুরসহ অফিসের আসবাপত্র ভাঙচুর করে স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরের লোকজন বলেও অভিযোগ করেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী অ্যাডভোকেট শাহ্ মো. ওয়ালিউল্লাহ অলি।

তবে এ বিষয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মনিরুল ইসলাম মনিরের ব্যবহৃত ০১৭১২৮৯২৫৬৫ এই নাম্বারে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

এ বিষয়ে বরগুনা সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও বরগুনার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. মাহবুব আলম বলেন, হামলা ও ভাঙচুরের বিষয়টি আওয়ামী লীগ প্রার্থী অ্যাডভোকেট শাহ্ মো. ওয়ালিউল্লাহ অলি আমাকে মৌখিকভাবে অবহিত করেছেন। তাকে আমি লিখিত অভিযোগ দিতে বলেছি। তিনি লিখিত অভিযোগ দিলে এ ঘটনায় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য