kalerkantho

শিবপুরে মা-মেয়ে গণধর্ষণ, মূল আসামি র‌্যাবের জালে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ মার্চ, ২০১৯ ১৭:২৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শিবপুরে মা-মেয়ে গণধর্ষণ, মূল আসামি র‌্যাবের জালে

শিবপুরের চাঞ্চল্যকর ও বহুল আলোচিত মা ও মেয়েকে গণধর্ষণ মামলার মূল আসামি মো. মোখলেছ (৩৬)-কে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যকশন ব্যাটালিয়ন ১১ এর একটি বিশেষ আভিযানিক দল। গ্রেপ্তারকৃত মোখলেছ গত ১৬ মার্চ ২০১৯ নরসিংদী শিবপুর থানায় রুজুকৃত চাঞ্চল্যকর গণধর্ষণ মামলার (মামলা নম্বর ১৭, তারিখ ১৬/০৩/২০১৯) পলাতক আসামি ও মূল হোতা। তার নামে ইতিপূর্বে শিবপুর থানায় ডাকাতি, অস্ত্র ও আইনশৃঙ্খলাবিঘ্নকারী দ্রুত বিচার আইনসহ নানা অপরাধে ৬টি মামলা রয়েছে।

নরসিংদী জেলার মাধবদী পৌরসভা এলাকায় পরিচালিত এই অভিযানে নেতৃত্ব দেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন ১১ এর অভিনায়ক লে. কর্নেল কাজী শামশের উদ্দিন। এ সময় তাঁর সঙ্গে আরো ছিলেন ক্রাইম প্রিভেনশন স্পেশাল কম্পানির কম্পানি কমান্ডার মেজর সাকিব ও স্কোয়াড কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জসিম উদ্দিন।

গ্রেপ্তারকৃতকে জিজ্ঞাসাবাদে ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায়, গত ১৫ মার্চ ২০১৯ মামলার ভিকটিম মা ও মেয়ে একসাথে ঢাকা থেকে হবিগঞ্জগামী একটি যাত্রীবাহী বাসযোগে বাড়ি ফেরার সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে বাসটি ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শিবপুরের সৃষ্টিগড় বাসস্ট্যান্ডের অদূরে বিকল হয়ে যায়। এ সময় ঘটনার মূলহোতা মোখলেছ (৩৬) ও তার সহযোগী দেলোয়ার হোসেন (৩০), শফিক (২৫), বাদল (৪২), বাবু (২৫), মো. আলমগীর (৪০) বাসে উঠিয়ে দেওয়ার কথা বলে ফুঁসলিয়ে সৃষ্টিগড় সাকিনস্থ প্রাইম জুটমিলের মধ্যে পরিত্যক্ত কক্ষে নিয়ে মা ও মেয়েকে পালাক্রমে গণধর্ষণ করে। নির্যাতনের শিকার মা ও মেয়ের চিৎকার শুনে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে ঘটনাস্থল থেকে মোখলেছ ও তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়।

পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে দেলোয়ার হোসেন ও শফিককে গ্রেপ্তার করে। ঘটনার প্রেক্ষিতে র‌্যাব ১১ এর একটি বিশেষ আভিযানিক দল নজরদারি করাসহ উক্ত ঘটনার মূল হোতা মোখলেছ ও পলাতক অন্যান্য আসামিদের গ্রেপ্তারের লক্ষ্যে বিভিন্ন অভিযান পরিচালনা করে। এরই প্রেক্ষিতে আজ ১৮ মার্চ ২০১৯ ভোর ৫টায় নরসিংদী জেলার মাধবদী পৌর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে মোখলেছকে আটক করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত আসামিকে নরসিংদীর শিবপুর থানায় পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য হস্তান্তর করা হয়েছে।  

মন্তব্য