kalerkantho

৩০ হাজার টাকায় নিজ মেয়েকে যৌনপল্লীতে বিক্রির চেষ্টা

এক পাষণ্ড বাবার কাণ্ড ...

গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি   

১৮ মার্চ, ২০১৯ ০২:৫৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এক পাষণ্ড বাবার কাণ্ড ...

নিজ কন্যাকে দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে বিক্রির চেষ্টাকালে গ্রেপ্তার হওয়া বাবা এরশাদ আলী ও যৌনকর্মী শিল্পী। ছবি : কালের কণ্ঠ

তের বছর বয়সী নিজ কন্যা সন্তানকে যৌনপল্লীতে বিক্রিকালে বাবা এরশাদ আলী ও সংশ্লিষ্ট যৌনকর্মী শিল্পী আক্তারকে হাতেনাতে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার এরশাদ আলী নওগাঁর মান্দা উপজেলার হোসেনপুর গ্রামের মো. আজগর আলীর ছেলে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার রাতে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া পতিতাপল্লীতে। গতকাল রবিবার দুপুরে এ ব্যাপারে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় মানবপাচার প্রতিরোধ আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ঢাকায় বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে বাবা এরশাদ আলী গত শনিবার তের বছর বয়সী নিজ ঔরশজাত কন্যাকে সঙ্গে নিয়ে নিজ বাড়ি থেকে বের হন। পরে ঢাকায় না নিয়ে ওই এরশাদ তার কন্যাকে নিয়ে আসে গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া পতিতাপল্লীতে। সেখানে পূর্ব পরিচিত যৌনকর্মী শিল্পী আক্তারের কাছে ৩০ হাজার টাকায় নিজ মেয়েকে তুলে দেয় পাষণ্ড বাবা এরশাদ। এ সময় বিষয়টি টের পেয়ে ওই কিশোরী চিৎকার করে বলে, ‘তোমরা আমাকে ছেড়ে দাও, আমি আমার মায়ের কাছে যাব।’ 

এ কথায় স্থানীয়দের মনে সন্দেহ সৃষ্টি হলে সঙ্গে সঙ্গে তারা স্থানীয় থানা পুলিশে খবর দেয়। পরে খবর পেয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশের একটি দল দৌলতদিয়া পতিতাপল্লীতে অভিযান চালায়। এ সময় ওই কিশোরী কন্যাকে উদ্ধার ও মেয়েটির বাবা এরশাদ আলীসহ সংশ্লিষ্ট যৌনকর্মী শিল্পী আক্তারকে হাতেনাতে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গতকাল রবিবার দুপুরে গ্রেপ্তার এরশাদ আলী ও যৌনকর্মী শিল্পী আক্তারের বিরুদ্ধে মানবপাচার প্রতিরোধ আইনে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. এজাজ শফী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘গ্রেপ্তার এরশাদ আলী বাবা নামের কলঙ্ক। ৩০ হাজার টাকার বিনিময়ে সে তার ঔরশজাত কিশোরী কন্যাকে যৌনপল্লীতে বিক্রির চেষ্টা চালিয়েছিল। উদ্ধার ওই মেয়েটির পাষণ্ড বাবা এরশাদসহ সংশ্লিষ্ট যৌনকর্মী শিল্পী আক্তারকে হাতেনাতে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।’ তবে, নির্ভরযোগ্য কোনো অভিভাবক না থাকায় আদালতের মাধ্যেমে ১৮ বছর বয়স পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত উদ্ধার ওই কিশোরীকে সরকারি সেভ হোমে রাখার প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে ওসি জানান।

মন্তব্য