kalerkantho


কুপিয়ে হত্যা করে গায়ে অগ্নিসংযোগ

বন্দরে প্রবাসীর স্ত্রীকে হত্যার ঘটনায় মামলা

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি   

২০ জানুয়ারি, ২০১৯ ২১:১৩



বন্দরে প্রবাসীর স্ত্রীকে হত্যার ঘটনায় মামলা

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার সোনাকান্দায় একটি ফ্ল্যাট বাসায় নাহিমা রহমান (৩৭) নামে গৃহবধূকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার ঘটনায় বন্দর থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

শনিবার গভীর রাতে নিহতের ভাই কামরুল হক বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেছে। এ ছাড়া আজ রবিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ ১০০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিহতের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধারকৃত আলামত নিয়ে তদন্ত করছে পুলিশ।

নিহত নাহিমা রহমান থাইল্যান্ড প্রবাসী আনিছুর রহমানের স্ত্রী। তিনি ছেলে নাফিজ রহমান (৮) ও মেয়ে আনুশী রহমানকে (১৫) নিয়ে ওই ফ্ল্যাটে ভাড়ায় বসবাস করতেন।

জানা গেছে, শনিবার দুপুরে উপজেলা সোনাকান্দা এলাকার ত্রিবেনী পুল সংলগ্ন আমিনুল হক মনার মালিকানাধীন মাবিয়া ভবনের দ্বিতীয় তলার ফ্ল্যানে কে বা কারা ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে নাহিমা রহমানকে হত্যা করে লাশে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরে তার মেয়ে বাসায় ঢুকে মায়ের শরীরে আগুন দেখতে পেয়ে চিৎকার শুরু করলে স্থানীয়রা এসে আগুন নিভিয়ে ফেলে। পুলিশকে জানালে বাসা থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

নারায়ণগঞ্জ ১০০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) আসাদুজ্জামান জানান, নিহতের মাথায় একাধিক ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। শরীরের বেশ কিছু অংশ আগুনে পুড়েছে।

বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম জানান, হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিহতের ভাই বাদী হয়েছে মামলা দায়ের করেছে। নিহতের মাথায় ৫ থেকে ৬টি ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। ধারনা করা হচ্ছে দুর্বৃত্তরা কুপিয়ে হত্যা করে আলামত নষ্টের জন্য গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। উদ্ধারকৃত মানিব্যাগে এক যুবকের ছবি পাওয়া গেছে। উদ্ধারকৃত মানিব্যাগের ছবি ও সিগারেটের সূত্র ধরে খুনীদের শনাক্ত করার চেষ্টা করা হচ্ছে। এ ছাড়া নিহতের মেয়ে বাসায় এসে মায়ের শরীরে আগুন দেখতে পেয়েছে। অর্থাৎ মেয়ে আনুশী স্কুল থেকে আসার কিছুক্ষণ আগেই দুর্বৃত্তরা ঘটনা ঘটিয়েছে। ধারনা করা হচ্ছে খুনীরা পূর্ব পরিচিত ও পরিকল্পিতভাবেই ঘটনাটি ঘটিয়েছে।



মন্তব্য