kalerkantho


আলোর ফেরিওয়ালার সৌজন্যে

মির্জাপুরে এক সপ্তাহে অর্ধশতাধিক ঘর আলোকিত

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি   

২০ জানুয়ারি, ২০১৯ ১৮:৩৬



মির্জাপুরে এক সপ্তাহে অর্ধশতাধিক ঘর আলোকিত

স্বপ্ন নয়, শতভাগ সত্যি। মাত্র পাঁচ মিনিটেই চলছে বিদ্যুৎ সংযোগ। টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে গত এক সপ্তাহে আলোর ফেরিওয়ালার সৌজন্যে অন্তত অর্ধশতাধিক ঘর আলোকিত হয়েছে। স্বপ্নের মতো এত সহজে বিদ্যুৎ সংযোগ পেয়ে এলাকার প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের মধ্যে যেন খুশির শেষ নেই।

টাঙ্গাইল পল্লিবিদ্যুৎ সমিতি-১ এর গোড়াই ও মির্জাপুর অঞ্চলের অফিস সূত্রে জানা গেছে, পল্লী বিদ্যুতের সেবা গ্রাহকদের জন্য সহজীকরণ করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। তারমধ্যে সবচেয়ে সারা জাগানো পদক্ষেপ হচ্ছে আলোর ফেরিওয়ালা। এর মাধ্যমে গ্রাহকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে অতি সহজে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয়। রিক্সা ভ্যানে করে তার মিটার নিয়ে এলাকায় ঘুরে ঘুরে জামানত জমার পাঁচ মিনিটের মধ্যে গ্রাহকের বাড়িতে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হচ্ছে।

মির্জাপুরে এই প্রকল্প শুরু হয়েছে এক সপ্তাহ আগে। ইতোমধ্যে মির্জাপুরের বিভিন্ন গ্রামে আলোর ফেরিওয়ালার সৌজন্যে অন্তত অর্ধশতাধিক বিদ্যুৎ সংযোগের মাধ্যমে ঘর আলোকিত করা হয়েছে বলে জানা গেছে। এ যেন স্বপ্নের আলাদিনের চেরাগ বাস্তবে ধরা দিয়েছে।

উপজেলার বহুরিয়া ইউনিয়নের গেড়ামেড়া গ্রামের আলম মিয়া ও কোর্ট বহুরিয়া গ্রামের সাইফুল ইসলাম বলেন, বিদ্যুৎ অফিসকে ঘিরে দালাল চক্র গড়ে উঠেছে। তাদের খপ্পরে পড়ে বিদ্যুতের জন্য হন্যে হয়ে ঘুরতে হয়। এত সহজে বিদ্যুৎ সংযোগ পাবো তা ভাবতেই পারিনি। তারা বলেন, এ যেন স্বপ্ন। 

দিঘুলিয়া গ্রামের রাসেল ও আব্দুল খালেক পাঁচ মিনিটে বিদ্যুৎ সংযোগ পেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তারা বলেন, শেখের বেটি যা কয় তাই করে। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ দিবার কথা কইছিল তাই দিতাছে।

টাঙ্গাইল পল্লিবিদ্যুৎ সমিতি মির্জাপুর জোনাল অফিসের উপমহাব্যবস্থাপক মোর্শেদুল ইসলাম বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগ, ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ। এই কর্মসুচীকে সফল করতেই আমাদের এই ব্যাতিক্রমধর্মী প্রকল্প। শতভাগ বিদ্যুতের জন্য এই কর্মসূচী চলমান থাকবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।



মন্তব্য