kalerkantho


তামাবিল শুল্ক স্টেশনে কাস্টমসের ওপর হামলার প্রতিবাদ

বেনাপোলে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ

বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি   

৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২৩:০২



বেনাপোলে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ

ছবি: কালের কণ্ঠ

সিলেট তামাবিল শুল্ক স্টেশনে কাস্টমস কার্যক্রমে বাধা ও উচ্ছৃংখল কিছু বিজিবি সদস্য কর্তৃক হামলা ও মারধরের ঘটনায় সেখানকার ডেপুটি কমিশনারসহ ৬ জন কাস্টমস কর্মকর্তা গুরুতর আহত হওয়ার ঘটনায় দায়ী বিজিবি সদস্যদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে ও তিন দফা দাবি বাস্তবায়নের লক্ষে রবিবার সকালে বেনাপোল কাস্টমস হাউজের সামনে বুকে কালো ব্যাচ ধারণ করে প্রতিবাদ কর্মসূচি ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেন খুলনা-মংলা যশোর-বেনাপোল কাস্টমস এক্সাইজ অ্যান্ড ভ্যাট এক্সিকিউটিভ অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন (খুকাএভ) ও বেনাপোল কাস্টমস হাউস এক্সিকিউটিভ অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা। 

এক ঘণ্টার প্রতিবাদ কর্মসূচি পালনের সময় বেনাপোল বন্দরের সঙ্গে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরের সকল প্রকার আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য ও বেনাপোল কাস্টমস ও বন্দরের কার্যক্রম বন্ধ থাকে। এ কর্মসূচির সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করেন বেনাপোল স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ এমপ্লয়ীজ ইউনিয়ন, বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশন ও সিএন্ডএফ এজেন্ট স্টাফ অ্যাসোসিয়েশন।

প্রতিবাদ কর্মসূচি ও বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন খুকাএভের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল-মামুন, বেনাপোল কাস্টমস হাউস এক্সিকিউটিভ অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের কর্মকর্তা রাজস্ব অফিসার মৃনাল কান্তি, বেলাল হোসেন, শুভাসিস মোদক, নমিতা রানী, কামরুজ্জামান, হাবিবুর রহমান, নুর মোহাম্মাদ, ছমির হোসেন, হুমায়ন কবির, সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা বিশ্বনাথ কুন্ডু, নাদিম আহম্মেদ, বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক লতা, বেনাপোল স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ এমপ্লয়ীজ ইউনিয়নের সহ সভাপতি মনির হোসেন মজুমদার, সিএন্ডএফ স্টাফ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন।

বক্তরা নিজেদের নিরাপত্তা দাবি করে তিন দফা দাবি ঘোষনা করেন। দাবিগুলো হলো, কাস্টমস চেকিংয়ের সময় কোনো বাহিনীর সদস্য উপস্থিত থাকতে পারবে না। কাস্টমস সদস্যদের অস্ত্র দিতে হবে ও পোশাক নীতিমালা বাস্তবায়ন করতে হবে। এসব দাবি ও তামাবিল শুল্ক স্টেশনের সংঘটিত ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের অবিলম্বে শাস্তির ব্যবস্থা করা না হলে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য, গত ৬ ডিসেম্বর সিলেটের তামাবিল শুল্ক স্টেশনে কাস্টমস তল্লাশির আগেই জোরপূর্বক বিজিবি সদস্যরা পাসপোর্টযাত্রীর ব্যাগেজ তল্লাশি করার চেষ্টাকালে কাস্টমস কর্মকর্তারা বাধা প্রদান করেন। এ সময় উচ্ছৃংখল কিছু বিজিবি সদস্য তাদের ওপর হামলা চালিয়ে সেখানকার ডেপুটি কমিশনারসহ ৬ জন কাস্টমস কর্মকর্তাকে গুরুতর আহত করে। 

এদের মধ্যে সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা তুহিন ও মুস্তাফিজ নামের দুই কর্মকর্তাকে গুরুতর অবস্থায় স্থানীয় সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে কাস্টমস কর্মকর্তা এবং কর্মচারীদের মধ্যে বিজিবি’র বিরুদ্ধে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়।



মন্তব্য