kalerkantho


চাঁদপুরে মহানবী (সা.) এবং মুক্তিযুদ্ধকে অবমাননার দায়ে শিক্ষক আটক

চাঁদপুর প্রতিনিধি   

২২ নভেম্বর, ২০১৮ ১৫:৪২



চাঁদপুরে মহানবী (সা.) এবং মুক্তিযুদ্ধকে অবমাননার দায়ে শিক্ষক আটক

মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এবং মহান মুক্তিযুদ্ধকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক শিক্ষকের অবমাননাকর পোস্ট দেওয়াকে কেন্দ্র করে চাঁদপুরে ইনস্টিটিউট অব মেরিন টেকনোলজিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে শিক্ষার্থীরা। এদিকে, এই ঘটনার বিচারের দাবিতে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে চলা এই কর্মসূচির পর দুপুরে একাডেমিক ভবনে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে তারা। এ সময় শিক্ষার্থীরা ওই শিক্ষকের কুশপুত্তলিকা দাহ করে। 

এর আগে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা চাঁদপুর-ফরিদগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের গাছতলা এলাকায় ঘণ্টাব্যাপী অবস্থান নেয়। অন্যদিকে, ঘটনার সুষ্ঠু বিচার এবং দায়ী শিক্ষক জয়ধন তনচঙ্গ্যার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাসের প্রেক্ষিতে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা শান্ত হয়।

তবে দুপুর ২টায় চাঁদপুর শহরের ওয়ারলেস এলাকা থেকে সদর মডেল থানা পুলিশ অভিযুক্ত শিক্ষককে আটক করে। জয়ধন তনচঙ্গ্যাকে আটকের কথা স্বীকার করেছেন চাঁদপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ইবরাহিম খলিল।

জানা গেছে, গতকাল বুধবার চাঁদপুরে ইনস্টিটিউট অব মেরিন টেকনোলজির ইলেক্ট্রিক্যাল বিভাগের শিক্ষক জয়ধন তনচঙ্গা তাঁর ফেসবুক আইডি থেকে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এবং মহান মুক্তিযুদ্ধকে নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে অবমাননাকর পোস্ট এবং শেয়ার করে। 

এই বিষয়টি সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়লে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। একপর্যায়ে তারা মিছিলসহ অভিযুক্ত শিক্ষকের কুশপুত্তলিকা দাহ করে। বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা চাঁদপুর-ফরিদগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের গাছতলা এলাকায় ঘণ্টাব্যাপী অবস্থান নেয়। ঘটনার পররপই পুলিশ গিয়ে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের শান্ত করে।

ওই শিক্ষকের এমন ধৃষ্টতাপূর্ণ মন্তব্যের প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে প্রতিষ্ঠানের একাডেমিক ভবনে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে। একই সঙ্গে তারা আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। তবে অভিযুক্ত শিক্ষককে আটকের পর বিকেলে শিক্ষার্থীরা তাদের আন্দোলনের কর্মসূচি প্রত্যাহার করে নিয়েছে।

এদিকে, প্রতিষ্ঠানের প্রধান প্রকৌশলী আক্রাম হোসেন জানান, অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে, চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান জানান, আটক শিক্ষকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল আইনে মামলা নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। 



মন্তব্য