kalerkantho


নোয়াখালীতে প্রতিবন্ধীদের মাঝে স্ট্যান্ডিং ফ্রেম ও সাদাছড়ি বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, নোয়াখালী   

২০ নভেম্বর, ২০১৮ ২২:১৮



নোয়াখালীতে প্রতিবন্ধীদের মাঝে স্ট্যান্ডিং ফ্রেম ও সাদাছড়ি বিতরণ

সমাজকল্যাণ মন্ত্রালয়ের অধীনে জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের সহায়তায় নোয়াখালীতে প্রতিবন্ধী সাহায্য ও সেবা কেন্দ্র মঙ্গলবার প্রতিবন্ধী শিশুদের মধ্যে স্ট্যান্ডিং ফ্রেম ও অন্ধদের মধ্যে সাদাছড়ি বিতরণ করা হয়।

নোয়াখালী প্রতিবন্ধী সাহায্য ও সেবা কেন্দ্রের পরিচালক কনস্যালটেন্ট (ফিজিওথেরাপী) ডাক্তার দেলোয়ার হোসেন জানান, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিবর্গের কল্যাণ ও অধিকার সুরক্ষায় সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়াধীন জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে সরা দেশে ৬৪ জেলায় ১০৩টি প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। এরই মধ্যে ২০১২ সাল থেকে নোয়াখালীতে এ সেবা প্রদান করা হচ্ছে। এর কার্যক্রমের মধ্যে রয়েছে প্রতিবন্ধীদের কাউন্সেলিং, প্রতিবন্ধীতার ধরণ নির্ণয়, পুর্নবাসন, ফিজিওথেরাপি, অকুপেশনাল থেরাপি, স্পিচ এন্ড ল্যাংগুয়েজ থেরাপি, অটিজম বিষয়ক সেবা, সহায়ক উপকরণ বিতরণ, সচেতনতা কার্যক্রম ও পক্ষাগ্রস্থদের সেবা। এ ছাড়া মোবাইল থেরাপি ভ্যান সেবাও রয়েছে, যার মাধ্যমে প্রত্যন্ত অঞ্চলে মোবাইল রিহেবিলিটেশান ভ্যান ক্যাম্পেইন পরিচালনা করা।

নোয়াখালীতে ২০১২ সাল থেকে এ পর্যন্ত এই কেন্দ্র থেকে ৯৪ হাজার ৩শত ৫০ জন বিনামূল্যে সেবা নিয়েছেন। এর মধ্যে ১৯৮ টি হুইল চেয়ার, ৫০টি সাদা ছড়ি, ৫টি ট্রাই সাইকেল, ৫০ টি কম্বল ও ১০ টি স্ট্যান্ডিং ফ্রেম বিনামূল্যে বিতরণ করা হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় আজ নোয়াখালী সদর উপজেলার দাদপুর ইউনিয়নের দামত্তপুর গ্রামের বেলাল হোসেনের ৭ বছরের শিশু মোশাররফ হোসেনকে স্ট্যান্ডিং ফ্রেম এবং জেলার সদস উপজেলার কাদির হানিফ গ্রামের নাসির চৌধুরীর স্ত্রী ৫০ বছরের বৃদ্ধা বিবি জহুরাকে সাদা ছড়ি বিতরণ করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, প্রতিদিন এ সেবা কেন্দ্রে সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত প্রায় দুই শতাধিক প্রতিবন্ধী শিশু থেকে শুরু করে আবাল, বৃদ্ধ বণিতা বিনামূল্যে সেবা দেওয়া হয়। যখন যার যেটি প্রয়োজন হয় তখন তাকে সেটি সেবা কেন্দ্র থেকে দেওয়া হয়।

সেখানে সেবা নিতে আসা শিশু মোশারফের মাতা জহুরা বেগম জানায়, তার এ শিশু ৭ বছর বয়স হলেও এখনো সে দাঁড়াতে পারে না। এই সেবা কেন্দ্রে খবর পেয়ে এখানে এসে সেবা নিয়েছি, এখন তারা একটি স্ট্যান্ডিং ফ্রেমও দিয়েছে আশা করি সে এখন সহজে দ্রুত দাঁড়াতে পারবে।

সাদা ছড়ি পাওয়া বিবি জহুরা জানান, তিনি দীর্ঘদিন থেকে সে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী চলতে ফিরতে তার কষ্ট হতো। কারো সাহায্য ছাড়া তিনি চলা ফেরা করতে পারেন না। এই সেবা কেন্দ্রের খবর পেয়ে এখানে এসে চিকিৎসা নিয়েছেন আজ তিনি সাদা ছড়ি পেয়েছেন। এ ছড়ি দিয়ে এখন চলাফেরা করতে পারবেন বলে জানান।

এ ছাড়া সেখানে বিভিন্ন থেরাপি নিতে আসা লোকজনকে দেখা গেছে একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত সকলে যার যার থেরাপি নিয়ে বাড়ি চলে যাচ্ছে।



মন্তব্য