kalerkantho


ভালুকায় ধর্ষণের পর শিশু হত্যা

আরেকজন গ্রেপ্তার, রিমান্ডের আবেদন

ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি    

১৪ নভেম্বর, ২০১৮ ০২:৪১



আরেকজন গ্রেপ্তার, রিমান্ডের আবেদন

ময়মনসিংহের ভালুকায় পাঁচ বছরের শিশু ফারজানা আক্তারকে ধর্ষণের পর হত্যা মামলায় আরো একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ নিয়ে দুজনকে গ্রেপ্তার করা হলো।

গত সোমবার রাতে পুলিশ মিনারা খাতুন (৩৫) নামের সন্দেহভাজন এই আসামিকে গ্রেপ্তার করে। তাঁকে সাত দিন হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদের (রিমান্ড) আবেদন জানিয়ে গতকাল মঙ্গলবার আদালতে সোপর্দ করেছে পুলিশ।

মিনারা খাতুন ভালুকা উপজেলার পাঁচগাঁও পূর্বপাড়া গ্রামের সফিকুল ইসলামের স্ত্রী। তিনি সম্পর্কে নিহত ফারজানার জেঠি। 

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ডাকাতিয়া ইউনিয়নের পাঁচগাঁও গ্রামের ফজলুল হক ওরফে ফজু মিয়ার মেয়ে ফারজানা আক্তার গত শুক্রবার সকালে স্থানীয় মক্তব থেকে ফেরার পথে পাশের এক বিয়েবাড়িতে যায়। তখন থেকে সে নিখোঁজ ছিল। পরে ওই দিন রাত সাড়ে ৯টার দিকে বাড়ির পাশের বাঁশঝাড় থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। শিশুটিকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে বলে পুলিশের ধারণা।

এ ঘটনায় শিশুটির বাবা গত শনিবার মামলা করেন। তবে মামলায় কোনো আসামির নাম উল্লেখ করা হয়নি। পরদিন রবিবার রাতে একই গ্রামের বাসিন্দা সফিকুল ইসলামকে (৩৪) গ্রেপ্তার করে পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশের কাছে তিনি শিশু ফারজানা আক্তার হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করেন। পরদিন সোমবার আদালতেও তিনি ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ভালুকা মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মতিউর রহমান জানান, তদন্তে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মিনারাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ঘটনায় আর কেউ জড়িত আছে কি না সেটাও তদন্ত করা হচ্ছে।



মন্তব্য