kalerkantho


নরসিংদীতে ধর্ষণের শিকার শিশু চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা

মাদারীপুরে প্রথম শ্রেণিতে পড়া শিশু ও প্রতিবন্ধী কিশোরী ধর্ষিত

নরসিংদী, মাদারীপুর ও কালকিনি প্রতিনিধি   

১৪ নভেম্বর, ২০১৮ ০২:৩১



নরসিংদীতে ধর্ষণের শিকার শিশু চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা

নরসিংদীর বেলাবতে ধর্ষণের শিকার এক শিশু অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে। চার মাস আগে এক কলেজ শিক্ষক তাকে ধর্ষণ করেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ছাড়া মাদারীপুর সদরে প্রথম শ্রেণির এক শিশু এবং কালকিনিতে প্রতিবন্ধী কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়।

নরসিংদীর বেলাবতে প্রায় চার মাস আগে গাজিউর রহমান দুলাল নামের এক কলেজ শিক্ষক পঞ্চম শ্রেণিতে পড়া ওই শিশুকে ধর্ষণ করেন বলে অভিযোগ ওঠে। বর্তমানে ওই শিশু চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা। ঘটনাটি ঘটে উপজেলার আমলাব ইউনিয়নের পাহাড় উজিলাব গ্রামে। পাহাড় উজিলাব গ্রামের তারা মিয়ার ছেলে দুলাল শিবপুর উপজেলার কামারটেক সবুজ পাহাড় ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক।

নির্যাতিত শিশু ও তার পরিবারের লোকজন জানায়, চার মাস আগে গাজিউর রহমান দুলাল দিনদুপুরে শিশুটিকে তার বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে ভয় দেখিয়ে নির্যাতন করেন। বিষয়টি কাউকে জানালে হত্যার পাশাপাশি বাড়িতে আগুন দেওয়ার হুমকি দিলে ভয়ে সে ঘটনা তখন প্রকাশ করেনি। সম্প্রতি শিশুটির শারীরিক পরিবর্তন আসায় ঘটনা জানাজানি হয়ে যায়।

শিশুটির মা কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, ‘আমি বিচারের আশায় থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। আমার এই শিশুসন্তানকে যে নির্যাতন করেছে, তার ফাঁসি চাই।’

ঘটনা ফাঁস হওয়ার পর থেকে শিক্ষক দুলাল ও তাঁর বাবা আত্মগোপন করেন বলে জানায় এলাকাবাসী। দুলালের ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনটিও বন্ধ পাওয়া যায়।

বেলাব থানার ওসি মো. জাবেদ মাহমুদ বলেন, ‘এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। মামলাটি প্রক্রিয়াধীন। ডাক্তারি রিপোর্ট হাতে পেলে আজকের (মঙ্গলবার) মধ্যেই অভিযোগটি মামলা হিসেবে নেওয়া হবে।’

এদিকে মাদারীপুর সদরের বলাইর চর গ্রামে গত রবিবার দুপুরে প্রথম শ্রেণির এক শিশু ধর্ষণের ঘটনায় তার মা বাদী হয়ে সদর থানায় মামলা করেছেন।

জানা গেছে, বিদ্যালয় ছুটির পর বাড়ি ফেরার পথে একই গ্রামের ফারুক সরদারের ছেলে নীরব সরদার চকলেটের লোভ দেখিয়ে পাশের বাগানে নিয়ে তার ওপর নির্যাতন চালায়। শিশুটি বর্তমানে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে চিকিত্সাধীন।

শিশুটির চাচা অভিযোগ করেন, ‘নীরবের প্রভাবশালী পরিবার আমাদের নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে। মামলা তুলে নেওয়ার জন্য চাপ দিচ্ছে।’

শিশুটির মা বলেন, ‘আমার ছোট্ট মেয়ে কষ্টে আর ভয়ে দিন কাটাচ্ছে।’

ঘটনার পর থেকে নীরব সরদার পলাতক রয়েছে। সদর মডেল থানার ওসি মো. ইসতিয়াক আহম্মেদ বলেন, ‘আশা করছি, দ্রুততম সময়ে তাকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হবে।’

এ ছাড়া জেলার কালকিনি উপজেলার সস্তাল গ্রামে গত সোমবার বিকেলে ধর্ষণের শিকার ১৪ বছর বয়সী প্রতিবন্ধী এক কিশোরীকে গতকাল সকালে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা গেছে, গত সোমবার বিকেলে উপজেলার সস্তাল গ্রামের আছমত ঘরামীর ছেলে আলমগীর ঘরামী ওই কিশোরীকে বাড়িতে একা পেয়ে পাশের একটি বাগানে ডেকে নিয়ে নির্যাতন করে। পরিবারের লোকজন পরে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে গতকাল সকালে হাসপাতালে ভর্তি করে।

মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) মো. বদরুল আলম মোল্লা জানান, ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত আলমগীর ঘরামী পলাতক রয়েছে। তাকে ধরার চেষ্টা চলছে।



মন্তব্য