kalerkantho


ইবির ৫ অনুষদ ভেঙে ৮টি করল প্রশাসন

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১৩ নভেম্বর, ২০১৮ ২০:৩৯



ইবির ৫ অনুষদ ভেঙে ৮টি করল প্রশাসন

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫ টি অনুষদ ভেঙে ৮ টি অনুষদ করেছে প্রশাসন। অর্গানোগ্রাম অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এস এম আব্দুল লতিফ স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট ৩৩টি বিভাগ এই প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী আট অনুষদের অধীনে কার্যক্রম পরিচালনা করবে বলেও জানান তিনি।

রেজিস্ট্রার অফিস সূত্রে জানা যায়, শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পূর্ণাঙ্গ অর্গানোগ্রাম পাস হয় এ বছরের ২১ শে জুন। অর্গানোগ্রামে বিশ্ববিদ্যালয়ে আটটি অনুষদ অনুমোদন দেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। পরে অর্গানোগ্রামে আজ মঙ্গলবার প্রজ্ঞাপন জারি করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্গানোগ্রাম অনুযায়ী এখন থেকে আটটি অনুষদের অধীনে সব বিভাগগুলো পরিচালিত হবে। এর আগে ৫ টি অনুষদের অধীনে ৩৩ টি বিভাগ পরিচালনা হতো।

মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদকে আলাদা করে ৫টি করে বিভাগ নিয়ে কলা অনুষদ এবং সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ করা হয়েছে। বাংলা সাহিত্য, ইংরেজি সাহিত্য, আরবি সাহিত্য, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি এবং ফোকলর স্টাডিস বিভাগকে কলা অনুষভুক্ত করা হয়েছে। সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত করা হয়েছে অর্থনীতি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, লোক প্রশাসন, উন্নয়ন অধ্যায়ন এবং সমাজকল্যাণ বিভাগগুলোকে।

এদিকে ফলিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদকে আলাদা করে বিজ্ঞান অনুষদ, প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদ এবং জীব বিজ্ঞান অনুষদ করা হয়েছে। অনুষদগুলোতে যথাক্রমে ৩, ৫ এবং ৩ টি বিভাগ দেওয়া হয়েছে। বিজ্ঞান অনুষদে গণিত, পরিসংখ্যান, পরিবেশবিজ্ঞান ও ভূগোল বিভাগ রাখা হয়েছে।

এ ছাড়া প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিজ্ঞান অনুষদে ইলেকট্রোক্যাল এ্যান্ড ইলেকট্রোনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, ফলিত ক্যামিস্ট্রি এ্যান্ড ক্যামিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, কম্পিউটার সয়েন্স এ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, ইনফরমেশন এ্যান্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং, বায়োমেডিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ রাখা হয়েছে। জীব বিজ্ঞান অনুষদে এ্যাপলাইড নিউট্রেশন এ্যান্ড ফুড টেকনোলজি, বায়োটেকনোলোজি এ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং, ফার্মেসি বিভাগ রাখা হয়েছে। এ ছাড়া ধর্মতত্ত্ব অনুষদ, আইন ও শরীয়াহ অনুষদ এবং ব্যবসায় প্রশসন অনুষদ পূর্বের ন্যায় পরিচালিত হবে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস এম আব্দুল লতিফ বলেন, অর্গানোগ্রাম অনুযায়ী অনুষদ সংখ্যা বৃদ্ধি করা হয়েছে। এখন থেকে এই নিদের্শনা অনুযায়ী বিভাগ সমূহ পরিচালিত হবে।



মন্তব্য